মোঃ লিহাজ উদ্দীন মানিক, বোদা (পঞ্চগড়) থেকেঃ পঞ্চগড়ের বোদায় অসামাজিক কর্মকান্ড ও মিথ্যা অভিযোগ এর বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ঝইলশালশিরি ইউনিয়নের হরিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টিকে কেন্দ্র করে।

সম্প্রতি উক্ত বিদ্যালয়ের সভাপতি দেব নারায়ন রায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ বিভিন্ন দপ্তরে একটি লিখিত আবেদন দাখিল করেছেন। লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, একটি কুচক্রি মহল প্রধান শিক্ষক অনন্ত কুমার অধিকারীর বিরুদ্ধে উঠে পড়ে লেগেছে।

গত ২৪ জুলাই ২০১৭ ইং তারিখে অভিভাবক সদস্য নির্বাচন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পদে বৈধ নির্বাচনে জমিদাতা ব্রজেন্দ্রনাথ অধিকারী পরাজিত হয়। পরাজিত হওয়ার পর ইউ’পি সদস্য আবুল হাসেমের নির্দেশে জাহাঙ্গীর আলম, নিরঞ্জন রায়, পরাজিত সভাপতি সহ সহকারী শিক্ষিকা আরতী রানী রায় এর সাথে যোগসাযোগ করে এলাকায় কালী পুজার পালাগান উপলক্ষে শিক্ষকদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা চাঁদা দাবি করেন।

শিক্ষকরা চাঁদা না দেওয়ার কথা অস্বীকার করলে তারা শিক্ষকদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ, প্রকাশ্যে মিথ্যা মামলায় ফাসানো হুমকি দেয়। যাহা কোমলমতি বিদ্যালয় শিশুদের সুষ্ট শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট করার সামিল। উক্ত জমিদাতা বিদ্যালয়ে জমিদান করলেও এখন পর্যন্ত জমি দখল দেন নাই।

তারা এলাকার বিভিন্ন লোকজনের কাছে বিভিন্ন ছলচাতুরীর মাধ্যমে জাল স্বাক্ষর করে সাধারণ মানুষকে হয়রানি করে আসছেন। এ ব্যাপারে এলাকার সচেতন মহল জানান, অনন্ত কুমার অধিকারী সৎ চরিত্র ও কর্তব্যনিষ্ঠা পরায়ন একজন সফল প্রধান শিক্ষক। তার বিদ্যালয় থেকে ইউনিয়ন, উপজেলা ও জেলা পর্যায় পর্যন্ত কৃর্তিত্বের সাফল্য বা সুনাম রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য