মোঃ শামসুল আলম বোচাগঞ্জ থেকেঃ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ড. হারুন-অর-রশিদ বলেছেন, সারাদেশে অসহায় দরিদ্র শিক্ষার্থীর সুবিধার্থে অসংখ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনার্স মাস্টার্স কোর্স চালু করা হয়েছে, এখন বসে থাকলে চলবে না দেশ জাতি গঠনের জন্য আমাদের মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি আরও বলেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে দেশ আজ অনেক দুর এগিয়েছে এ ধারাবাহ্যিকতা অক্ষুন্ন রেখে ২০২১ সালের মধ্যে আমাদের এ প্রিয় মাতৃভূমিকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত করতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি বলেন ১৯৬৭ সালে দলমত নির্বিশেষে আমাদের পূর্ব পুরুষরা যে স্বপ্ন নিয়ে সেতাবগঞ্জ কলেজ প্রতিষ্ঠিত করেছিল আগামীতে সকলে মিলে এই ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিঠটিকে আদর্শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার মাধ্যমে তাদের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হবে। সভায় বক্তব্য রাখেন কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ মনজুর আলম ও সাবেক অধ্যক্ষ বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ আব্দুর রশিদ।

এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সারওয়ার মোর্শেদ, সেতাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোঃ আব্দুস সবুর, সাবেক অধ্যক্ষ যথাক্রমে মোঃ সফিউল আলম, মোঃ আমিনুল ইসলাম, মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ আফসার আলী, সাবেক যুগ্ম সচিব পরিমল চন্দ্র সাহা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আফসার আলী, উপজেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব সাদিক রিয়াজ চৌধুরী পিনাক, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সফিকুল আলম, জাতীয় পার্টির সভাপতি ্এ্যাডঃ মোঃ জুলফিকার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সিরাজুল ইসলাম, সেতাবগঞ্জ কলেজের ১ম সাবেক জিএস বিশিষ্ট সমবায়ী মোঃ মজিবর রহমান, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান গন সহ প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থী ছাড়াও এলাকার সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেন সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন কমিটির আহবায়ক বাংলা বিভাগের প্রধান সাবেক সহকারী অধ্যাপক মোঃ মেজবাহুজ্জামান মোল্লা বুলবুল। আলোচনা শেষে উক্ত মঞ্চে উন্মুক্ত স্মৃতিচারণ সন্ধায় কলেজের নিজস্ব শিল্পী ও অতিথি শিল্পীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য