কঙ্গনা রনৌত এখন ‘মনিকর্নিকা: দ্য কুইন অব ঝাঁসি’ ছবির কাজ নিয়ে আছেন। শুটিং শেষ হতে এখনো অনেক বাকি। কিন্তু একটি ছবির শুটিং শেষ হওয়ার আগেই পরবর্তী প্রকল্প নিয়ে পরিকল্পনা শুরু করেছেন এই তারকা। রহস্য গল্প নিয়ে তৈরি এই সিনেমার প্রযোজক শৈলেশ আর সিং।

শৈলেশ ও কঙ্গনা দুজনেই ছবির নাম দিতে চান ‘মেন্টাল’। কারণ, ছবির গল্পের সঙ্গে এই নামটি বেশি জুতসই মনে হয়েছে তাঁদের কাছে। কিন্তু তাঁরা এখন চাইলেও ছবিটিকে এই নাম দিতে পারছেন না। কারণ, সালমান খান। ‘ভাইজান’ নাকি বছর দেড়েক আগেই ‘মেন্টাল’ নামের কপিরাইট করে রেখেছেন।

ভারতীয় চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতিতে শৈলেশ তাঁর ছবির জন্য ‘মেন্টাল’ নামটি নেওয়ার আবেদন করতে গেলে তাঁরা জানায়, সালমান খানের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আগেই এই নামটি ‘বুক’ করে রেখেছে। আসলে এ বছর মুক্তিপ্রাপ্ত ‘টিউবলাইট’ ছবির নাম হওয়ার কথা ছিল ‘মেন্টাল’।

পরে কোনো কারণে নামটি বাদ দিয়ে রাখা হয় ‘টিউবলাইট’। কিন্তু আগের সেই টাইটেলটি এখনো সাল্লুর নামেই আছে। কাজেই তিনি অনুমতি না দেওয়া পর্যন্ত কঙ্গনার নতুন ছবির প্রযোজক নামটি ব্যবহার করতে পারবেন না।

কিন্তু ‘ভাইজান’ সেই অনুমতি দেবেন? কঙ্গনা যে ‘সুলতান’ ছবির প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন, সেটা নিশ্চয় সাল্লু ভুলে যাননি। সেই ছবিতে অভিনয় না করার প্রসঙ্গে এই নায়িকা বলেছিলেন, ‘আমি আমার আগের ছবিগুলোতে কেন্দ্রীয় ও যুগল চরিত্রে অভিনয় করেছি। এখন এ ছবিতে এত অল্প ব্যাপ্তির চরিত্রে কাজ করতে চাই না। এজন্য আমি ছবিটিতে সাইন করিনি।’

তা ছাড়া ‘কাট্টি বাট্টি’ সিনেমাতে অভিনয়ের জন্য নাকি কঙ্গনাকে সালমান খানই পরামর্শ দিয়েছিলেন। এই নায়িকা প্রথমে ছবিটি করতে মোটেও রাজি ছিলেন না। সালমানের অনুরোধে ঢেঁকি গিলে বেশ খেসারত দিতে হয় তাঁকে। কারণ, ইমরান খান ও কঙ্গনা রনৌতের সেই ছবিটি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ে। এনডি টিভি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য