বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য দেশকে বাদ দিয়ে ইতালিকে বেছে নেওয়ায় ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলির দেশপ্রেম নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের বিজেপি দলীয় এক আইনপ্রণেতা।

গত সপ্তাহে ইতালির তাসকানিতে আড়ম্বরপূর্ণ এক ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন কোহলি।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, মঙ্গলবার মধ্যপ্রদেশের গুনা এলাকার আইনপ্রতিনিধি পান্না লাল শাক্য বিরাট ‘দেশপ্রেমিক নয়’ বলে মন্তব্য করেছেন।

‘স্কিল ইন্ডিয়া সেন্টার’ নামের একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের উদ্বোধন করে অনুষ্ঠানে উপস্থিত লোকজনের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, “বিরাট অর্থ উপার্জন করেছে ভারতে, কিন্তু সে দেশে বিয়ে করার জন্য জায়গা খুঁজে পেল না। হিন্দুস্থান কি অস্পৃশ্য?”

তিনি আরো বলেন, “প্রভু রাম, প্রভু কৃষ্ণ, বিক্রমাদিত্য, যুধিষ্ঠির এই ভূমিতে বিবাহ করেছেন। আপনাদের সকলের এখানেই বিবাহ করা উচিত। বিবাহ করার জন্য আমাদের কারোই বিদেশে যাওয়া উচিত না। (কোহলি) এখানে উপার্জন করে শত কোটি ব্যয় করল সেখানে (ইতালিতে) ।

“দেশের প্রতি (তার) কোনো শ্রদ্ধাবোধ নেই। এটাই প্রমাণ করে, সে দেশপ্রেমিক না।”

প্রশিক্ষণার্থীরা যদি ভারতে কাজ না করে তাহলে তাদের প্রশিক্ষণ দেওয়া অর্থহীন বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

বলেছেন, “প্রশিক্ষণ নেওয়ার পর, আপনাদের উচিত দেশেই কাজ করা। এটাই সবচেয়ে বড় জাতীয় সেবা হবে। অন্যথায়, অর্থ উপার্জন করে বিরাটের মতো ইতালি গিয়ে বিয়ে করুন, পিকনিক করুন তারপর ফিরে আসুন।

“একজন যত বড়ই হোন না কেন, তিনি আমাদের আদর্শ মানুষ হতে পারেন না। আদর্শ মানুষ তিনিই যিনি দেশের প্রতি সৎ থাকেন এবং কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করেন।”

ইতালির নর্তকীরা ভারতে কাজ করে লাখ লাখ রুপি কামাই করে সেই অর্থ ইতালিতে নিয়ে যাচ্ছে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য