ভারত ও ইসরায়েলের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নের লক্ষ্যে ভারতীয়দের জন্য ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করার উদ্যোগ নিয়েছে ইসরায়েল। ভারতীয় বাসিন্দাদের ইসরায়েল ভ্রমণে উৎসাহিত করতেই দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু এমন উদ্যোগ নিয়েছেন। মধ্যপ্রাচের সংবাদ পর্যবেক্ষণের ব্রিটিশ সংস্থা মিডলইস্ট মনিটরের এক প্রতিবেদন থেকে এমনটা জানা যায়।

হিন্দু বিজনেস লাইনের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমটি জানায়, যেসব ভারতীয় যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা অথবা অস্ট্রেলিয়ার মতো শেনগেন (Schengen) দেশগুলোর ভিসা পেয়েছেন বা ভ্রমণ করেছেন তাদের কম কাগজপত্র জমা দিতে হবে। দেশটিতে অবস্থিত ইসরায়েলি দূতাবাস এ তথ্য জানিয়েছে বলে জানায় হিন্দু বিজনেস লাইন।

ইসরায়েলি পর্যটন মন্ত্রণালয়ের ভারতীয় পরিচালক হাসান মাদাহ বলেন, ‘অভ্যন্তরীণ ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে মিলে আমরা এ বিষয়ে কাজ করছি। এর মাধ্যমে যেসব ভারতীয় ইসরায়েল ভ্রমণ করতে চায় তারা অনেক পরিবর্তন লক্ষ্য করতে পারবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘ভিসা প্রক্রিয়া সহজীকরণ শুধু আবেদন প্রক্রিয়াই দ্রুত করবে না, ইসরায়েলে ভ্রমণকারীর সংখ্যাও বৃদ্ধি করবে।’

জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানীর স্বীকৃতির বিষয়ে নরেন্দ্র মোদির অস্পষ্ট অবস্থানের বিষয়ে ভারতীয় জনতা পাটির (বিজেপি) সমালোচনার পরই ইসরায়েলের পক্ষ থেকে এমন ঘোষণা দেওয়া হল। ঐতিহাসিকভাবে ভারত ফিলিস্তিনিদের দাবিকে সমর্থন করে।

দেশটির প্রতিষ্ঠাতা অবিসংবাদিত নেতা মহাত্মা গান্ধী থেকে শুরু করে আগের সব প্রধানমন্ত্রী ইসরায়েলের বিরোধিতা করেছেন। তারা একে উপনিবেশিক আগ্রাসন বলেই মনে করতেন।

মহাত্মা গান্ধী ফিলিস্তিনে ইহুদিদের দেশ গড়ার ধারণার তীব্র বিরোধিতা করেছিলেন। নরেন্দ্র মোদি ক্ষমতায় আসার পরে ভারতের এ অবস্থার ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে। দুই দেশের মুসলিম বিদ্বেষী ডানপন্থী প্রধানমন্ত্রীদের মধ্যে এমন সম্পর্ক নিয়ে বিভিন্ন সময় সমালোচনা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য