দিনাজপুরের বীরগঞ্জে আইনজীবির সাথে দ্বন্দে এসিল্যান্ডকে বদলী করা হয়েছে। মঙ্গলবারে বীরগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। আইনজীবি বিনোদ বিহারী রায় জানান, মোঃ সাহেব আলী প্রার্থী এবং প্রতিপক্ষ মোঃ খায়রুল ইসলাম গং এর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বিরোদা রানী রায়ের কার্যালয়ে ভোগনগর ইউনিয়নের গোপালপুর মৌজার একটি জমির খারিজ বাতিলের মামলা চলমান রয়েছে।

সেই মামলার শুনানী ছিল। মামলার প্রার্থী মোঃ সাহেব আলীর পক্ষে শুনানীতে অংশগ্রহণের জন্য উপস্থিত হয় আইনজীবি বিনোদ বিহারী রায়। তিনি এসিল্যান্ডের অনুমতিক্রমে ভিতরে প্রবেশ করে বসতে চাইলে এসিল্যান্ড বিনোদা রানী রায় তাকে কক্ষ থেকে বেড়িয়ে যেতে বলেন। তিনি তার পরিচয় দিয়ে মোঃ সাহেব আলীর পক্ষে শুনানীতে অংশগ্রহণের জন্য এসেছেন জানালে তিনি আরও উত্তেজিত হয়ে বলেন আইনজীবি হয়েছেন তো কি হয়েছে। এই মুহুর্তে রুম থেকে বেড়িয়ে যান।

তিনি রুম থেকে বেড়িয়ে মামলার শুনানিতে অংশ গ্রহণ করবেন না বলে মোঃ সাহেব আলীকে জানিয়ে দেন। কিন্তু সাহেব আলীর অনুরোধে শুনানিতে আবার অংশ নিতে গেলে এসিল্যান্ড তাকে শুনানিতে অংশগ্রহণ করতে দিবে না বলে মর্মে জানিয়ে দেয়। এ বিষয়ে যুক্তি তর্কের এক পর্যায়ে নিজ কার্যালয়ে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে মোবাইল কোর্টের ১৮৬ ধারা অনুযায়ী আইনজীবি বিনোদ বিহারী রায়কে ৫০০টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১দিনের জেল রায় প্রদান করেন সহকারী কমিশনার (ভুমি) বিরোদা রানী রায় ।

আইনজীবি বিনোদ বিহারী রায় জরিমানা দিয়ে মুক্ত হয়ে দিনাজপুর জেলা আইনজীবি সমিতির কাছে বিচার প্রার্থনা করেন। আইনজীবি সমিতি পক্ষ থেকে দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে বিভাগিয় কমিশনারের কাছে অভিযোগ করা হয়। বিভাগিয় কমিশনার তাৎক্ষনিক ভাবে সহকারী কমিশনার (ভুমি) বিরোদা রানী রায়কে ভুরুঙ্গামারী বদলী করে যোগদানের নিদের্শ দিয়েছেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পরবর্তী করণীয় বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য দিনাজপুর জেলা আইনজীবি সমিতির জরুরী সভা চলছিল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য