মো: ইউসুফ আলী আটোয়ারী (পঞ্চগড়) থেকেঃ পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে আাদালতের আদেশ উপেক্ষা করে জমি দখল করতে গিয়ে সংঘর্ষে এক পক্ষের ৪জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

জানাগেছে, উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের বড়দাপ মৌজার জে.এল.নং ৪৪ মধ্যে সি.এস ৪১, এস.এ ৪১ নং খতিয়ানভুক্ত ১২.৯০ একর জমি নিয়ে রাধানগর দিঘীপাড়া গ্রামের আবুল কাশেম গংদের সাথে রাধানগর বোর্ড অফিস এলাকার মকবুল হোসেন(মাষ্টার) গংদের বিবাদ চলছিল।

উক্ত জমি নিয়ে আদালতে মামলা হয়েছে, মামলা নং ৮০/২০১৭ অন্য। মামলার বাদী মোঃ কাশেম গং বলেন, বিবদমান জমি নিয়ে আদালতে মামলা চলছে।

বিজ্ঞ আদালত নালীশি জমির উপর উভয় পক্ষকে স্থীতিবস্তা বজায় রাখার আদেশ দিয়েছেন। মকবুল মাস্টার সহ তার সাঙ্গপাঙ্গরা আদালতের আদেশ অমান্য করে ভাড়াটিয়া বাহিনী সহ ধান কেটে নিয়ে জমি দখল করতে এসেছিল।

আমি ও আমার ফুফাতো ভাই আব্দুল সহ তাদেরকে আদালতের আদেশের কথা বলতে গেলে তারা উত্তেজিত হয়ে এলোপাথারী মারপিট শুরু করে। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের সৃস্টি হয়। কাশেম আরো বলেন, আমরা নিরস্ত্র ছিলাম। তাই পরিকল্পিতভাবে আমাদের উপর অস্ত্র দিয়ে আঘাত করেছে। সংঘর্ষে ৪জন আহত হয়।

আহতদের তাৎক্ষনিক আটোয়ারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে আব্দুল(৫২) ও সাবিনা ইয়াসমিন(৩২) এর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ঠাকুরগাও আধুনিক হাসপাতালে রেফার্ড করেছেন। এবিষয়ে মকবুল মাষ্টার বলেন, উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়েছে।

আমাদেরও একজন রোগী ঠাকুরগাও হাসপাতালে ভর্তি আছে। রাধানগর ইউপি সদস্য আবু ছায়েদ (সহিদুল)বলেন, মকবুল মাষ্টার গং মাহিন্দ্র ট্রাক্টর দিয়ে জমি চাষ করতে এসেছিল,আমি নিজেই তাদেরকে বাধা করেছি,আমার কথা রাখেনি।এব্যাপারে রাধানগর ইউপি চেয়ারম্যান আবু জাহেদ বলেন, উভয় পক্ষকে নিয়ে বসা হয়েছিল, আমার কথা কেহ রক্ষা করেনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য