দিনাজপুরের বীরগঞ্জে হাতি দিয়ে চাঁদাবাজির সময় ব্যসায়ীদের সাথে সংঘর্ষে ৩জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় হাতির এক মাহুতের সহযোগীকে আটক করে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে দিয়েছে স্থানীয় জনতা। এ ঘটনায় এক অটো রিক্সা চালকসহ ২যাত্রী আহত হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর ২টায় উপজেলার শতগ্রাম ইউনিয়নের ঝাড়বাড়ী বাজারে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় জনতা জানান, দুপুরে ২টি হাতি নিয়ে ৬জন লোক শতগ্রাম ইউনিয়নের ঝাড়বাড়ী বাজারে আসে।

এ সময় তারা হাতি দিয়ে বিভিন্ন দোকান হতে ২০হতে ৪০টাকা চাঁদা তুলতে থাকে। অনেক দোকানদার ঔ পরিমান টাকা দিতে না পারায় হাতি দিয়ে তাদের উপর চড়াও হয় হাতির মাহুত। এ নিয়ে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা প্রতিবাদ জানালে তারা হাতি দিয়ে দোকান এবং দোকানের আসবাবপত্র ভাংচুর করে।

ব্যবসায়ীরা তাদেরকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল ছুড়ে মারে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে হাতির মাহুত হাতিকে দিয়ে একটি অটো রিক্সার উপর হামলা চালায়।

হামলা পঞ্চগড় জেলার দেবিগঞ্জ উপজেলার সুন্দরদিঘী গ্রামের শ্যামল দেব নাথ (৩২) নামে এক আটো চালকসহ দুই যাত্রী আহত হয়। এ ঘটনার পর এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে হাতিগুলিকে ঘেরাও করে। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে হাতি ফেলে তারা পালিয়ে যায়।

পালিয়ে যাবার সময় জয়পুর হাট জেলার ধামোর উপজেলার উত্তর চক্রমোহন গ্রামের মোঃ গোলাম মোস্তফার ছেলে মোঃ সাইফুল ইসলাম (২৮) নামে একজনকে আটক করে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে দেয় এলাকাবাসী।

শতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. কেএম কুতুব উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পরিষদের কাজে বর্তমানে আমি উপজেলা সদরে থাকার কারণে সংঘর্ষের সঠিক কারণ সম্পর্কে অবহিত নই। ঘটনার পর বিষয়টি আমাকে বীরগঞ্জ থানা প্রশাসন অবহিত করেছে। তবে পালিয়ে যাবার সময় হাতিগুলি রেখে গেছে বলে জানতে পেরেছি। আমি এ ব্যাপারে খোজ খবর রাখছি এবং পরিস্থিতি শান্ত রাখতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে পরিষদের উপস্থিত সকলকে যাবতীয় নিদের্শনা দিয়েছি।

বীরগঞ্জ থানার এসআই প্রাণ কৃষ্ণ রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি আমরা জেনেছি। তবে লিখিত ভাবে কোন অভিযোগ পাই নি। বিষয়টি শতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. কেএম কুতুব উদ্দিনকে অবহিত করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য