জান্নাতুল ফেরদৌস পিয়া এখন দিন-রাত ব্যস্ত। কখন যে সূর্য ওঠে আর কখন যে তা ডুবে যায় সেই দিকে তার কোনো খেয়াল থাকে না। র‌্যাম্প মডেল, অভিনেত্রী ও সফল উপস্থাপনায় দর্শক পিয়াকে দেখেছেন। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন পত্রপত্রিকা আর ম্যাগাজিনে প্রায়ই তাকে নিয়ে রিপোর্ট বা প্রতিবেদনও প্রকাশ হয়েছে। বিশ্বব্যাপী শোবিজ তারকাদের কাছে কাক্সিক্ষত ম্যাগাজিন ‘ভোগ’-এর প্রচ্ছদেও মডেল হিসেবে কাজ করেছেন তিনি। এ ছাড়া একাধিক ক্রিকেটারের সঙ্গে বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হয়েছেন এ পর্দাকন্যা।

তবে ক্রিকেট বিষয়ক কোনো আয়োজনে এবারই প্রথম সঞ্চালকের ভূমিকায় কাজ করছেন তিনি। জমজমাট বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) শুরু হয়েছে গত ৪ঠা নভেম্বর। পঞ্চমবারের মতো আয়োজিত বিপিএলের মাঠে এবার উপস্থাপনা করছেন পিয়া। বেসরকারি একটি টিভি চ্যানেল মাঠ থেকে এটি সরাসরি সমপ্রচার করছে।

ম্যাচগুলোতে মাঠে থেকে সরাসরি উপস্থাপনা কেমন উপভোগ করছেন জানতে চাইলে পিয়া বলেন, বেশ ভালো লাগছে আমার। বিপিএলের মাঠে আগাগোড়া কাজ করছি আমি। বিশ্বের বড় বড় দেশে গিয়ে মডেলিং করার অভিজ্ঞতা থাকলেও ক্রিকেট ম্যাচে মাঠ থেকে উপস্থাপকের ভূমিকায় হাজির হওয়া আমার জন্য একদমই নতুন অভিজ্ঞতা। আমি বেশ এনজয় করছি। এর আগের আসরগুলোতে বিপিএলে উপস্থাপনা করতে দেখা গেছে শিনা চৌহান ও আমব্রিনকে।

নতুন করে এবার যুক্ত হয়েছেন পিয়া। এর আগে তিনি মডেলিং ও অভিনয়ের বাইরে ‘হলি ডে প্ল্যানার’ নামের ট্রাভেল শো-র উপস্থাপক হিসেবে বেশ সফলতা পান। নিজের বর্তমান ব্যস্ততা নিয়ে পিয়া আরো বলেন, প্রতিদিনই কিছু না কিছু কাজ থাকছে আমার। এই যেমন ১৪ই ডিসেম্বর অ্যাপেক্সের একটি ইভেন্টে আমি ও ক্রিকেটার তাসকিন অংশ নিচ্ছি। আর ১৭ই ডিসেম্বর আরেকটি অনুষ্ঠানে আমার সঙ্গে থাকছেন অভিনেতা ইরেশ যাকের।

এরমধ্যে কিছু ফটোসেশনের কাজও আছে। আর ২১শে ডিসেম্বর খুলনা যাব। সেখানে আমার মায়ের একটা স্কুলের বাচ্চাদের খেলনা উপহার দিব। নতুন কোনো নাটক বা সিনেমায় কাজ করছেন কি? এই প্রশ্নের জবাবে পিয়া বলেন, ১৮ ও ১৯শে ডিসেম্বর নাগরিক টিভির জন্য একটি নাটকের শুটিং আছে। নাটকটি পরিচালনা করবেন ময়নুল খোকন। রেদওয়ান রনির ‘চোরাবালি’ ছবিতে অভিনয় দিয়ে চলচ্চিত্রে পথচলা শুরু করে এরইমধ্যে আরো বেশকিছু ছবিতে কাজ করেছেন এই অভিনেত্রী।

তার অভিনীত ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘স্টোরি অব সামারা’, ‘গ্যাংস্টার রিটনার্স’। সবশেষ অপূর্বর বিপরীতে ‘গ্যাংস্টার রিটানর্স’ ছবিটি মুক্তি পায় তার। এ ছাড়া ‘ছিটমহল’ নামে একটি ছবিতেও কাজ করেছেন তিনি। এ ছবির কাজও এরইমধ্যে শেষ হয়েছে। এখানে আরো বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শিমুল খান ও মৌসুমী হামিদ। এটি পরিচালনা করেছেন এইচ আর হাবিব। নতুন ছবিতে তাকে কম দেখা যাচ্ছে কেন জানতে চাইলে পিয়া বলেন, কম বা বেশি দেখা যাচ্ছে একটিও ঠিক না।

আমার সঙ্গে তো ব্যাটে বলে মিলতে হবে, তারপর কাজ। যদি মনে হয় ভালো কোনো চরিত্র পেয়েছি যেটা করলে আমার প্রোফাইলে বলার মতো কিছু যুক্ত হবে তাহলেই কেবল আমি নতুন ছবিতে কাজ করব।

আর উপস্থাপনা কেমন উপভোগ করছেন এখন? এমন প্রশ্নে পিয়ার সোজাসুজি জবাব, ভালো। কারণ আমি সেই অনুষ্ঠানগুলোতেই উপস্থাপনা করি যেগুলো আসলে করতে চাই। আমার যেসব কাজ পছন্দ হয় না আমি করি না। কারণ এখানে প্রফেশন থেকে প্যাশন বেশি কাজ করে আমার। টিভি আর চলচ্চিত্র- দুই মাধ্যমেই পিয়ার বিচরণ দাপটের সঙ্গে।

বিজ্ঞাপনের মডেল, উপস্থাপক, অভিনেত্রী এসবের পাশে তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আরেকটি পরিচয়। আর তা হচ্ছে আইনি পেশা। কাজের পাশাপাশি আইন বিষয়ে পড়াশোনা করেছেন পিয়া। তিনি লন্ডন কলেজ অব লিগ্যাল স্টাডিসে পড়াশোনা সম্পন্ন করে আইনপেশায় সম্পৃক্ত হয়েছেন। দেশের অন্যতম আইনজীবী ও সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেনের তত্ত্বাবধানে ইন্টার্নি করেছেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য