এক মাস আগেই বড় পর্দার মুখ তমা মির্জা অভিনীত ‘গেইম রিটার্নস’ ছবিটি মুক্তি পায়। এ ছবির পর আবার গত সপ্তাহে মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত নতুন ছবি ‘চল পালাই’।

এ ছবিটি পরিচালনা করেছেন দেবাশীষ বিশ্বাস। দেশের ৬৫টি সিনেমা হলে মুক্তি পায় ছবিটি। এতে সোনিয়া চরিত্রে অভিনয় করেছেন তমা মির্জা। সঙ্গে আছেন দুই নায়ক শিপন ও শাহরিয়াজ। তবে ছবি দেখার জন্য এখনো সিনেমা হলে যেতে পারেননি তিনি।

তমা মির্জা বলেন, আমার মন ভালো নেই। কারণ আমার খালামনি এখন এ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তিনি মস্তিষ্কজনিত রোগে ভুগছেন। তাই কয়েকদিন ধরে এখানেই থাকতে হচ্ছে আমাকে। ওঁর শারীরিক অবস্থা ভালো নেই।

এরমধ্যে আমার অভিনীত ছবি মুক্তি পেলেও প্রেক্ষাগৃহে যাওয়া হয়নি। তবে এটুকু বলতে চাই ভিন্ন ধরনের গল্পের মধ্য দিয়ে চমৎকারভাবে এগিয়ে গেছে ছবিটি। অনেক দর্শক ছবিটি পছন্দ করছে বলেও জেনেছি।

এদিকে ছবিটির সফলতা-ব্যর্থতার ভার দর্শকদের ওপর ছেড়ে দিয়েছেন এ ছবির পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাস। এটি ভিন্ন ধারার বাণিজ্যিক ছবি বলে মনে করেন তিনি। ভিন্নতা আনতে রাঙামাটির পাহাড়ের দুর্গম পথে পথে কাজটি করেছেন তমা মির্জা ও ছবির বাকি কলাকুশলীরা।

‘চল পালাই’ ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন সাদেক বাচ্চু, বড়দা মিঠু, রেবেকা, শিমুল খান, চিকন আলী প্রমুখ। দেখতে দেখতে ঢালিউডে পার হয়েছে তমা মির্জার বেশ কয়েক বছর। ‘বলো না তুমি আমার’, ‘মানিক রতন দুই ভাই’, ‘তোমার মাঝে আমি’, ‘ইভটিজিং’, ‘ও আমার দেশের মাটি’, ‘এক মন এক প্রাণ’ ‘তোমার কাছে ঋণী’ ‘নদীজন’সহ বেশকিছু ছবি মুক্তি পেয়েছে তার।

‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৫’-এর আসরে ‘নদীজন’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য পার্শ্ব চরিত্রে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে পুরস্কার জেতেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য