শ্রীলঙ্কার দক্ষিণাঞ্চলে কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ হাম্বনটোটা সমুদ্র বন্দর ৯৯ বছরের ইজারায় চীনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

শনিবার শ্রীলঙ্কার পার্লামেন্টে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই হস্তান্তর সম্পন্ন হয় বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি।

অনুষ্ঠানে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে বলেন, “এই সমঝোতার মাধ্যমে (চীনের) ঋণ ফিরিয়ে দেওয়া শুরু করলাম আমরা। হাম্বনটোটা ভারত মহাসাগরের প্রধান একটি বন্দরে পরিণত হবে।

“এখানে একটি অর্থনৈতিক অঞ্চল হবে এবং এই এলাকার শিল্পায়ন অর্থনৈতিক উন্নয়নে নেতৃত্ব দিবে, পর্যটনের সুযোগ তৈরি করবে।”

চায়না মার্চেন্টস্ পোর্ট হোল্ডিং কোম্পানি (সিএমপোর্ট) এর পরিচালনাধীন দুটি চীনা প্রতিষ্ঠান, হাম্বনটোটা ইন্টারন্যাশনাল পোর্ট গ্রুপ (এইচআইপিজি) ও হাম্বনটোটা ইন্টারন্যাশনাল পোর্ট সার্ভিস (এইচআইপিএস) এবং শ্রীলঙ্কা বন্দর কর্তৃপক্ষ হাম্বনটোটা বন্দর ও এর পার্শ্ববর্তী অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোর স্বত্বাধিকারী হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা।

শ্রীলঙ্কার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে তার নিজ জেলায় চীনা বিনিয়োগের এসব নির্মাণ প্রকল্প উদ্বোধন করেছিলেন। দেশটির তৎকালীন অর্থমন্ত্রী রাভি কারুনানায়েকে জানিয়েছিলেন, শ্রীলঙ্কা চীনের কাছ থেকে আট বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ নিয়েছে।

শ্রীলঙ্কা সরকার চীনা প্রতিষ্ঠানগুলোকে বড় ধরনের কর ছাড় মঞ্জুর করেছে যা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে দেশটির বিরোধী দলগুলো। তারা বন্দর ইজারার এই চুক্তিকে ‘বন্দর বিক্রির চুক্তি’ বলেও অভিহিত করেছে।

ভারত মহাসাগরের এই বন্দরটি চীনের ‘ওয়ান বেল্ট, ওয়ান রোড’ উদ্যোগে বড় ধরনের ভূমিকা পালন করবে বলে ধারণা করছেন পর্যবেক্ষকরা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য