নীলফামারীর ডোমারে পারিবারিক কলহের জেড়ে পবিত্রা রানী(২৫) নামে এক সন্তানের এক জননী গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। গতকাল শুক্রবার রাতে উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড রেললাইন পাড়ায় ঘটনাটি ঘটে।

আজ শনিবার দুপুরে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলার মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। পবিত্রা রানী সোনারায় রেললাইন পাড়ার প্রদীপ চন্দ্রের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানায়, পারিবারিক বিষয়ে স্বামী-স্ত্রীর সাথে মনোমালিন্য চলে আসছিল।শুক্রবার সকালে তাদের মধ্যে বাক-বিতন্ডার ঘটনা ঘটে। এরেই এক পর্যায়ে সকলের অগোচরে তার নিজ ঘড়ে গরুর গরু গলায় ঝুলিয়ে ঘড়ের স্বরের মধ্যে সে আত্মহত্যা করে।

ডোমার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) ইব্রাহিম খলিল মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ময়না তদন্তের জন্য লাশ জেলার মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তদন্ত রির্পোট আসার পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য