পাওলি দামের হাতে ভাত-কাপড়-শাড়ির থালা তুলে দেন তাঁর স্বামী অর্জুন দেব। আর বললেন, ‘আজ থেকে সারা জীবনের জন্য তোমার ভাত-কাপড়ের দায়িত্ব নিলাম।’ গতকাল শুক্রবার ভারতের আসামের রাজধানী গুয়াহাটির শ্বশুরবাড়িতে পাওলির বউভাত অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

বিয়ের মতো বউভাত অনুষ্ঠানও ছিল বাঙালি ঘরানায়, সনাতনী হিন্দু শাস্ত্রমতে। এই অনুষ্ঠানে পাওলি সেজেছেন লাল শাড়ি, সিঁদুরের টিপ, শাখা-পলা আর সোনার গয়নায়। শাস্ত্রমতে, দুপুরে অনুষ্ঠিত হয় ভাত-কাপড় দেওয়ার পর্ব।

গতকালের অনুষ্ঠানে ছিলেন দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠ সদস্যরা। বিয়ে হোক বা বউভাত, কোনো নিয়মই বাদ দিতে চাননি পাওলি। প্রথম থেকেই মেনে চলেছেন সবকিছু। পাওলি আর অর্জুনের বিয়েতেও জৌলুশ ছিল, কিন্তু চাকচিক্যের বাহুল্য ছিল না। শুরু থেকে শেষ, বাঙালিয়ানাই ছিল এই বিয়ের আকর্ষণীয় দিক।

পাওলি জানান, আগামীকাল রোববার গুয়াহাটির অভিজাত হোটেল তাজ ভিভান্টায় আয়োজন করা হয়েছে তাঁদের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠান। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন দুই পরিবারের আত্মীয়স্বজনসহ আসামের চলচ্চিত্র ও সংস্কৃতি অঙ্গনের অনেকেই। অনুষ্ঠানে পাওলি পরবেন হাতের তাঁতে তৈরি লাল ও সোনালি রঙের পৈঠানি শাড়ি। আর অর্জুন পরবেন ডিজাইনার রোহিত বালের নকশা করা শেরওয়ানি।

বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠান সেরে পাওলি আর অর্জুন হানিমুনের জন্য যাবেন দেশের বাইরে। তবে কোথায় যাবেন, তা বলেননি। জানা গেছে, অর্জুন নাকি এই হানিমুন প্লেস নিয়ে পাওলিকে চমকে দিতে চান।

ভারতের বাংলা ও হিন্দি ছবির আলোচিত তারকা পাওলি দাম বিয়ে করেছেন। দীর্ঘদিনের বন্ধু অর্জুন দেবের সঙ্গে গত সোমবার সন্ধ্যায় সাত পাকে বাঁধা পড়েন তিনি। কলকাতার হোটেল তাজ বেঙ্গলে এই বিয়ের আনুষ্ঠানিকতার আয়োজন করা হয়। তাঁরা বিয়ে করেছেন বাঙালি হিন্দু শাস্ত্রমতে। এরপর বিয়ের অনুষ্ঠান হয়েছে এই হোটেলে। বিয়ের আসরে বসার আগে পাওলি আর অর্জুন সেরে নেন বিয়ের নিবন্ধন। বিয়ের পর ৬ ডিসেম্বর স্বামীর সঙ্গে পাওলি যান গুয়াহাটিতে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য