রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ কোরীয় উপদ্বীপে নতুন করে উস্কানি সৃষ্টির জন্য আমেরিকাকে দায়ী করেছেন। তিনি বলেছেন, ওই উপদ্বীপে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে মিলে আমেরিকা যে যৌথ সামরিক মহড়া চালাচ্ছে তার জের ধরে উত্তর কোরিয়া আবারো ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাতে পারে।

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় শুক্রবার ইউরোপের একটি সংস্থার পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের অবকাশে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ অভিযোগ করেন ল্যাভরভ।

তিনি বলেন, গত সেপ্টেম্বরে ওয়াশিংটন মস্কোকে জানিয়েছিল, “বসন্ত আসার আগে কোরীয় উপদ্বীপে আর কোনো সামরিক মহড়া চালানো হবে না।” রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ওয়াশিংটনের ওই বক্তব্য থেকে মস্কো যে বার্তাটি নিয়েছিল তা হলো, “আমেরিকা সংলাপের পরিবেশ তৈরি করতে চায়।” ল্যাভরভ আরো বলেন, “আমরা ওই বার্তাটি পিয়ংইয়ংকে পৌঁছে দিয়েছি এবং তারা এর জবাবে না বলেনি।”

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “কিন্তু অক্টোবরে পূর্ব ঘোষণা বা পরিকল্পনা ছাড়াই বিশাল মহড়া চালানো হলো। এরপরও উত্তর কোরিয়া কোনো আকস্মিক পদক্ষেপ নেয়নি। পিয়ংইয়ং আকস্মিক প্রতিক্রিয়া দেখাতে পারে ভেবে আবার নভেম্বরে ঘোষণা করা হলো যে, ডিসেম্বরে আবার মহড়া চালানো হবে। ” তিনি কোরীয় উপদ্বীপে উত্তেজনা প্রশমিত না হওয়ার জন্য আমেরিকার এ ধরনের ‘উস্কানিমূলক’ পদক্ষেপকে দায়ী করেন।

গত ৪ ডিসেম্বর থেকে কোরীয় উপদ্বীপে মার্কিন সামরিক বাহিনী দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়া চালাচ্ছে। এতে উত্তর কোরিয়ার সম্ভাব্য হামলা মোকাবিলার নানা প্রয়োগ করা হচ্ছে।

এই মহড়া শুরু হওয়ার পর বুধবার উত্তর কোরিয়া সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, এ ধরনের মহড়া আমেরিকার সঙ্গে দেশটির যুদ্ধকে অবশ্যম্ভাবী করে তুলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য