মাসুদ রানা পলক,ঠাকুরগাঁও থেকেঃ ঠাকুরগাঁও শহরের উত্তরপাশের সেনুয়া বেইলী ব্রিজটি মালবাহী ট্রাকসহ ভেঙ্গে পড়ে প্রায় ১০টি ইউনিয়নের কয়েক লক্ষাধিক মানুষের যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দূর্ভোগে পড়েছে ওইসব এলাকার সাধারণ মানুষ।

ব্রিজটি ভেঙ্গে যাওয়ার সময় ব্রিজের উপরে থাকা বরুনাগাও এলাকার ধন মোহাম্মদের ছেলে আইনুল হক (৬৫) নামের একজন পথচারি আহত হয়।

শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় একটি কয়লা বোঝাই ট্রাক ঝুঁকিপূর্ণ সেনুয়া বেইলী ব্রিজটির উপর উঠলেই ব্রিজটির উত্তর পাশের অংশটি ভেঙ্গে পড়ে।

প্রত্যদক্ষর্শী সূত্রে জানা গেছে, ঠাকুরগাঁও শহরের বরুনাগাঁও নামক স্থানে সেনুয়া বেইলি ব্রিজটি অবস্থিত। দীর্ঘদিন আগেই ব্রিজটি ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষনা করেন এলজিইডি কর্তৃপক্ষ। শহরের ঠিকাদার রামবাবুর ভাটায় কয়লা নেয়ার সময় দশ চাকার ট্রাকটি অতিরিক্ত ওজনের কারনে ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ ভেঙ্গে পড়ে।

ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানাযায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় ঝুঁকিপূর্ণ সেনুয়া বেইলি ব্রিজটি দিয়ে একটি কয়লা বোঝাই ট্রাক ফাঁড়াবাড়ি এলাকার দিকে যাওয়ার চেষ্টা করলে ব্রিজের উত্তর পাশের অংশ ট্রাকসহ ভেঙ্গে পড়ে। ব্রিজটি পারাপারের সময় একজন পথচারি আহত হয়।

ঠাকুরগাঁও এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী কান্তেশ্বর বর্মন জানান, সেনুয়া বেইলি ব্রিজটি অনেকদিন আগেই ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষনা করা হয়েছে। তবুও ওই ব্রিজটি দিয়ে মানুষ ভারী যানবাহন নিয়ে চলাচল করছিল। ফলে ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ে। ব্রিজ মেরামতের জন্য উর্ধŸতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে। দ্রুত ব্রিজ মেরামত করে যানচলাচলের জন্য স্বাভাবিক করা হবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলেন, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দেখেছি। ব্রিজটি ভেঙ্গে যাওয়ায় অনেক মানুষের অসুবিধা হয়েছে। ব্রিজটি মেরামতের জন্য দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য