দক্ষিণ কোরিয়ার পাইওংচাংয়ে আগামী বছর হতে যাওয়া শীতকালীন অলিম্পিকে রাশিয়ার অংশগ্রহণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি।

‘অভূতপূর্ব কৌশলে’ অ্যান্টি ডোপিং ব্যবস্থাপনা এড়িয়ে যাওয়ার অভিযোগে সম্প্রতি বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় রাশিয়ার অ্যাথলেটদের অংশগ্রহণে ধারাবাহিক স্থগিতাদেশের পর এবার পুরো অলিম্পিকে দেশটির অংশগ্রহণে এ নিষেধাজ্ঞা এলো।

একই অভিযোগে গত বছরের রিও অলিম্পিকের ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে অংশ নিতে পারেননি রুশ অ্যাথলেটরা।

মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির (আইওসি) বৈঠকে শীতকালীন অলিম্পিকে রাশিয়াকে নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত হয় বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে। আগামী বছরের ৯ থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ কোরিয়ায় শীতকালীন অলিম্পিক হওয়ার কথা।

রাশিয়া অংশ নিতে না পারলেও ‘নিষ্পাপ অ্যাথলেটদের’ জন্য অলিম্পিকের দ্বার খোলা থাকবে বলে জানিয়েছে আইওসি; কঠোর নির্দেশ মেনে চলার পাশাপাশি আগে কখনোই ডোপিং করেননি এমন প্রমাণ দিতে পারা অ্যাথলেটদের ‘অলিম্পিক অ্যাথলেট অব রাশিয়া’ নামে অংশগ্রহণের সুযোগ দেওয়ার কথা বলেছে তারা।

২০১৪ সালে সোচিতে হওয়া আগের শীতকালীন অলিম্পিকে পদক তালিকার শীর্ষে ছিল রাশিয়ার অ্যাথলেটরা। এরপরই তাদের বিরুদ্ধে ডোপিংয়ের অভিযোগ ওঠে।

ব্রাজিলের রিওতে গত বছরের অলিম্পিকের আগে মস্কোর পরীক্ষাগারেই রাশিয়ার অ্যাথলেটদের ডোপিংয়ের প্রমাণ মেলে। এরপর তাদেরকে ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে অযোগ্য ঘোষণা করা হয়।

সুইজারল্যান্ডের সাবেক প্রেসিডেন্ট স্যামুয়েল স্মিডের নেতৃত্বে একটি কমিশন সোচি অলিম্পিকে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় রাশিয়ার অ্যাথলেটদের ডোপ দেওয়ার কথা নিশ্চিত করার পর পরের অলিম্পিকে তাদের নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত হয়।

“রাশিয়ায় পদ্ধতিগত উপায়ে ডোপিং এবং অ্যান্টি ডোপিং ব্যবস্থাপনায় হস্তক্ষেপ করা হয়েছে বলে প্রমাণ মিলেছে। ২০১৪ সালে সোচিতেও এটি হয়েছে,” সংবাদ সম্মেলনে বলেন স্মিড।

তিনি জানান, রাশিয়ার সাবেক অ্যান্টি ডোপিং প্রধান গ্রিগরি রদচেনকভের সাক্ষ্যের পাশাপাশি বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা, নথি ও বিভিন্ন জনের সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে এই সত্য উদ্ঘাটিত হয়েছে। তবে ডোপ কেলেঙ্কারিতে রাশিয়া সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তারা জড়িত ছিলেন এমন ‘অকাট্য প্রমাণ’ পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন তিনি।

অ্যাথলেটদের ডোপ দেওয়ার অভিযোগে রাশিয়ার অলিম্পিক কমিটির (আরওসি) প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার জুকভের আইওসি সদস্যপদ স্থগিত করা হয়েছে। ২০১৪ সালে সোচি অলিম্পিকের সময় ক্রীড়ামন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা ভিটালি মুটকোকে ভবিষ্যতে অলিম্পিকের যে কোনো কর্মসূচিতে অংশগ্রহণে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে; মুটকো এখন রাশিয়ার উপ প্রধানমন্ত্রী।

রাশিয়া অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট জুকভ আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির সিদ্ধান্তকে ‘পরষ্পরবিরোধী’বলে দাবি করেছেন।

তিনি বলেন, “ডোপমুক্ত খেলোয়াড়দের সকল খেলায় অনুমতি দেওয়ার কথা আইওসির।”

রাশিয়ার স্কেটিং ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট অ্যালেক্সেই ক্রাভৎসভ আইওসির সিদ্ধান্তকে ‘আক্রমণাত্মক, অপমানজনক’ ও ‘পুরোপুরিভাবে অবিচার’ বলে অভিহিত করেছেন।

“পুরো অলিম্পিক আন্দোলনের জন্যই এ সিদ্ধান্ত বড় ধরণের আঘাত,” বলেছেন তিনি।

তবে রাশিয়াকে বহিষ্কারের এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

ক্রেমলিনের সমালোচক হিসেবে পরিচিত মার্কিন সিনেটর জন ম্যাককেইন বলেছেন, আগামী বছরের শীতকালীন অলিম্পিক থেকে রাশিয়াকে বাদ দেয়ার এ সিদ্ধান্ত ২০১৪ সালে ভ্লাদিমির পুতিনের সরকারের ডোপ কেলেঙ্কারির ন্যায় বিচার।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য