হাকিমপুর (দিনাজপুর) সংবাদদাতাঃ দিনাজপুররের হাকিমপুরে এক বালুমহাল ইজারাদারের বিরুদ্ধে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগে সোমবার ইউএনও বরাবরে এক লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। উপজেলার মাধবপাড়া গ্রামের মেহের আলী নামক এক কৃষকসহ একই গ্রামের আরো ৪৯ জন কৃষক ও গ্রামবাসি এ অভিযোগ দায়ের করেন।

নদীর বালুমহালের ইজারার অন্তরালে ফললি জমি ও নদীর ইজারাকৃত দাগের বাহিরের অংশের একই স্থান থেকে দীর্ঘ ৭ মাস যাবত ২টি ড্রেজার মেশিন দিয়ে শত শত ফিট গভীর করে বালু উত্তোলন করায় এ অভিযোগটি দায়ের করা হয়।

অভিযোগে প্রকাশ , উপজেলার খট্টামাধবপাড়া ইউপির ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া যমুনা নদীর মাধবপাড়া বালুর ঘাটসহ পাশ্ববর্তী আরো দুটি বালুর ঘাট জেলার বিরামপুর উপজেলার প্রভাবশালী মুশফিকুর রহমান নামক এক ব্যাক্তি চলতি বাংলা হালসনের জন্য বালুরঘাট ইজারা গ্রহণ করেন।

এরপর তিনি প্রথম থেকেই অপর দুটি ঘাটে বালু ইত্তোলন বন্ধ রেখে শুধু মাত্র মাধবপাড়া বালুর ঘাটের পাশে ইজারাকৃত দাগের বাহিরে মালিকানাধীন ফসলি জমি ও নদীর তীর থেকে দীর্ঘ ৭ মাস থেকে দুটি ড্রেজার মেশিন দিয়ে শত শত ফিট গভীর করে বালু ইত্তোলন করে চলেছে।

ফলে একদিকে যেমন ভুক্তভোগী কৃষকদের জমি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে সর্বশান্ত হচ্ছে অপরদিকে বর্ষা মৌসুমে নদীর তীর ভেঙে নিকটবর্তী মাধবপাড়া গ্রামটিও নদী গর্ভে বিলীন হবার আশঙ্খা দেখা দিয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক ও গ্রাবাসীদের পক্ষ থেকে এই অবৈধ বালু উত্তোলনে বাধা দিলে ইজারাদারের নিয়োগকৃত লোকজনের হুমকির মুখে নিরুপায় হয়ে এর প্রতিকার চেয়ে তারা ইউএনও বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ব্যপারে মঙ্গলবার মুঠোফোনে ইউএনও মোসা. শুকরিয়া পারভীনের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, আইন মেনে বিধিমোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য