মোঃ আবেদ আলী, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) থেকেঃ বীরগঞ্জে রবিবার সকালে পাথরঘাটা নদীর শ্মশান থেকে কলেজ ছাত্র প্রদীপের (১৭) লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।

বীরগঞ্জ থানা সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়নের বড়হাট নাপিত পাড়ার পালানু পালের ছেলে ও চৌধুরীহাট টিবিএম কলেজের এইচএসসি ১ম বর্ষের ছাত্র। লেখাপড়ার পাশাপাশি গোলাপগঞ্জ বাজারে একটি সেলুনে কাজ করে।

প্রদীপ গত শনিবার দুপুরের খাওয়া সেরে বাড়ী থেকে বেড়িয়ে যায়। সন্ধ্যায় তার বাবা মোবাইলে যোগাযোগ করলে প্রদীপ জানায় বাড়ীতে ফিরতে দেরী হবে। তারপর থেকে তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায় এবং রাতে বাড়ীতে ফিরে আসেনি। পারিবারের লোকজন সারা রাত সম্ভব্য সকল স্থানে তাকে খুজে পায়নি।

গত রবিবার সকালে এলাকার মানুষ পাথরঘাটা নদীর শ্মশান ঘাটে প্রদীপের লাশ ভাসতে দেখে ইউপি সদস্য মোঃ হামিদুল ইসলাম থানায় সংবাদ দেয়। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের সুরতহাল লিপিবদ্ধ করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরন করে। এলাকাবাসীর ধারনা কে বা কারা তাকে হত্যা করে ফেলে রেখে পালিয়ে গেছে।

বীরগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ মছেউল গনি সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, প্রদীপের বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা দায়ের করেছে। ঘটনার তদন্ত চলছে, ভিসারা রির্পোট পেলে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য