দিনাজপুর সংবাদাতাঃ “স্বাস্থ্য আমার অধিকার” এই প্রতিাদ্যকে সামনে রেখে সারা দেশের ন্যায় দিনাজপুরে বিশ্ব এইডস দিবস-২০১৭ পালিত হয়েছে।

শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) বিশ্ব এইডস দিবস উপলক্ষে সকালে দিনাজপুর সিভিল সার্জন অফিসের আয়োজনে বেসরকারি সংস্থাসমূহের সহযোগিতায় সিভিল সার্জন কার্যালয় হতে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়।

র‌্যালিতে দিনাজপুর পুলিশ সুপার মো. হামিদুল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. গোলাম রাব্বি, সিভিল সার্জন ডা. মওলা বকস্ চৌধুরী, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপপরিচালক ডা. আবু নছর নুরুল ইসলামসহ অন্যান্য অতিথি অংশগ্রহণ করেন।

র‌্যালি শেষে দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতাল মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডা. মওলা বক্স চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর পরিবার পরিকল্পনার উপ-পরিচালক ডা. আবু নছর নুরুল ইসলাম চৌধুরী, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক উপপরিচালক ডা. মো. শহিদুল্লাহ, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. মাসুদ রেজা খান, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা. ইমদাদুল হক প্রমূখ। এবং অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা অফিসার মো. সাইফুল ইসলাম।

সভাপতির বক্তব্যে সিভিল সার্জন ডা. মওলা বকস্ চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশে সর্ব প্রথম ১৯৭৯ সালে এইডস্ রোগ সনাক্ত করা হয়। এ পর হতে এ পর্যন্ত বাংলাদেশের ৪১৪৩ জন এইডস্ রোগে আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৬৫৮ জন মৃত্যুবরণ করেছে।

তিনি বলেন কেমলমাত্র ধর্মীয় অনুশাসন ও অনিরাপদ যৌন মিলনই এইডসের মত ভয়াবহ সংক্রামক ব্যাধি হতে বেঁচে থাকা সম্ভব। তাই সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে সচেতন করতে হবে। তাহলেই এই ভয়াবহ সংক্রামক রোগ হতে বেঁচে থাকা সম্ভব হবে।

র‌্যালী ও আলোচনা সভায় দিনাজপুর নার্সিং ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিস, দিনাজপুর পৌরসভা, স্কাউটস, বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা পিএসটিসি, কাঞ্চন সমিতি, ব্র্যাক, সূর্যের হাসি ক্লিনিক, এফপিএবি, পল্লী শ্রী, লাইট হাউস, অনন্যা সংস্থা, আরএইচ স্টেপ ক্লিনিক, অনুঘটক সংস্থাসহ বিভিন্ন সরকারী-বেসরকী দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করে।

আলোচনা সভা শেষে সিভিল সার্জন ডা. মওলা বকস্ চৌধুরী অন্যান্য অতিথিদের সাথে নিয়ে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে ফিতা কেটে তথ্য ভান্ডার কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য