আফগানিস্তানের সীমান্ত সংলগ্ন পাকিস্তানের পার্বত্য এলাকায় যুক্তরাষ্ট্রের সম্ভাব্য ড্রোন হামলায় চারজন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন পাকিস্তানের কর্মকর্তারা।

বৃহস্পতিবার হাক্কানি জঙ্গিদের গোপন আস্তানা লক্ষ্য করে হামলাটি চালানো হয় বলে জানিয়েছেন তারা, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

খবরটি নিশ্চিত হলে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর পাকিস্তানে চালানো যুক্তরাষ্ট্রের এ ধরনের চতুর্থ হামলা হবে এটি।

পাকিস্তানের দুই গোয়েন্দা কর্মকর্তা ও স্থানীয় সরকারের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, মানুষবিহীন একটি আকাশযান থেকে জঙ্গিদের গোপন আস্তান লক্ষ্য করে দুটি ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়।

হাক্কানি নেটওয়ার্কের জ্যেষ্ঠ কমান্ডার আব্দুর রাশীদ হাক্কানির নেতৃত্বে ওই আস্তানাটি পরিচালিত হতো বলে জানিয়েছেন তারা।

ওই কর্মকর্তাদের মধ্যে একজন জানান, উচ্চ কুররাম এলাকায় একটি বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে প্রথমে কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিল গ্রামবাসীরা।

“পরে আমাদের চরেরা জানায় হাক্কানিদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের একটি ড্রোন হামলা চালিয়েছে,” বলেন তিনি।

নিহতদের মধ্যে আস্তানাটির কমান্ডারও আছেন কি না তা পরিষ্কার নয় বলে জানিয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কর্মকর্তারা।

আফগানিস্তানের যুদ্ধ প্রসঙ্গে নতুন নীতি গ্রহণ করেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এই নীতিতে পাকিস্তানভিত্তিক হাক্কানি নেটওয়ার্কসহ জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষেত্রে পাকিস্তানের সঙ্গেও কঠোর অবস্থান নেওয়ার পরিকল্পনা করেছেন তিনি।

তারপর থেকে হাক্কানি নেটওয়ার্কের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ইসলামাবাদের ওপর ক্রমাগত চাপ দিচ্ছে ওয়াশিংটন। জঙ্গিগোষ্ঠীটি পাকিস্তানের ভূখণ্ড ব্যবহার করে প্রায়ই আফগানিস্তানে মার্কিন নেতৃত্বাধীন নেটো বাহিনীর ওপর হামলা চালিয়ে থাকে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য