আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ রুশ সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবের শততম বার্ষিকী ও বাসদ মাকর্সবাদীর ৩৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে গাইবান্ধা স্বাধীনতা বিজয় স্তম্ভ প্রাঙ্গণে বুধবার বিকেলে বাসদ মাকর্সবাদী জেলা শাখার উদ্যোগে জনসভা অনুষ্ঠিত হয়।

আহসানুল হাবীব সাঈদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জনসভায় প্রধান বক্তা কমরেড শুধাংশু চক্রবর্ত্তীসহ অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা বাসদ মাকর্সবাদী সদস্য সচিব মনজুর আলম মিঠু, সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আহবায়ক বীরেন চন্দ্র শীল, সমাজতান্ত্রিক ক্ষেতমজুর কৃষকফ্রন্ট নেতা প্রভাষক গোলাম সাদেক লেবু, বাংলাদেশ নারী মুক্তি কেন্দ্র জেলা সভাপতি অধ্যাপক রোকেয়া খাতুন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক পরমানন্দ দাস প্রমুখ।

কমরেড শুধাংশু চক্রবর্ত্তী বলেন, পুঁজিবাদী শাসন-শোষন আজকের দিনে কতটা ভয়ানক হয়ে উঠেছে, তা বর্তমান সরকারের দিকে তাকালে বুঝা যায়। ভোটার বিহীন প্রার্থী বিহীন প্রহসনের নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে ক্ষমতায় এসে বর্তমান আওয়ামী লীগ নেতত্বাধীন সরকার একের পর এক জনস্বার্থ বিরোধী কর্মকান্ড করে যাচ্ছে। চারসহ নিত্যপণের দাম লাগামহীন বেড়ে চলেছে।

আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানির দাম কমা সত্ত্বেও বাংলাদেশে বৃদ্ধি করেছে। অযৌক্তিকভাবে দফায় দফায় বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি করে গনমানুষের জীবন দুর্বিসহ করে তুলেছে। ঘুষ-দুর্নীতি-লুটপাট ক্ষমতাসীনদের যেন অধিকার। কোটি কোটি মানুষ বেকার, ঘুষ ছাড়া চাকুরী হয় না। মাদক জুয়া-অপসংস্কৃতি অশ্লীলতা যুব সমাজকে অধঃপতিত ঝরছে। বাড়ছে গুম, খুন, নারী-শিশু নির্যাতন। শিক্ষা-চিকিৎসা এখন ব্যবসা, টাকা থাকলে পাওয়া যায়। সুন্দরবন ধ্বংস করে রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্র করা হচ্ছে। সরকারের নতজানু বিদেশনীতির কারণে ভারত একতরফা পানি প্রত্যাহার করায় শুকিয়ে যাচ্ছে দেশের নদ-নদী।

তিনি বলেন, দেশের মানুষের বর্তমান এই দুরাবস্থা থেকে মুক্ত করতে হলে বামপন্থীদের নেতৃত্বে আগামীদিনে লড়াই সংগ্রাম গড়ে তুলতে হবে। লড়াই-সংগ্রামে দেশের সকল শোষিত-নির্যাতিত মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান। তিনি আরও বলেন, বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির ঘোষণা বাতিল এবং চালসহ নিত্যপণের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার অর্ধদিবস হরতাল সফল করতে দেশবাসীকে উদাত্ত আহবান জানান।

আহসানুল হাবীব সাঈদ বলেন, সুন্দরগঞ্জের চর খোর্দ্দায় বেক্সিমকো পাওয়ার প্লান্ট সোলার বিদ্যুৎ প্লান্ট নির্মাণের নামে আবাদি জমি ধ্বংস ও বসতবাড়ী থেকে মানুষ জোর পূর্বক উচ্ছেদ করছে। তিনি অবিলম্বে বেক্সিমকোর এই সর্বনাশা গণবিরোধী উদ্যোগ বন্ধ করতে সরকারের প্রতি দাবী জানান। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে তীব্র লড়াই গড়ে তোলার আহবান জানান। জনসভার পূর্বে দুপুর ১২টায় বিপুল সংখ্যক মানুষ শহরের প্রধান সড়ক দিয়ে একটি লাল পতাকা মিছিল করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য