গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় রুম্পা খাতুন (২২) নামে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনার পর থেকে স্বামী সুমন মিয়া পলাতক রয়েছেন।

সোমবার রাত ১১টার দিকে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের তিস্তা নদের নয়নসুক ক্যানেলের অদূরে ধান ক্ষেত থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। রুম্পা খাতুন সুন্দরগঞ্জ উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের খুলপাড়া গ্রামের সুমন মিয়ার স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ দুজনের মধ্যে পারিবারিক সমস্যা চলে আসছিলো। ঘটনার দিন দুজনের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ হয়্। বিকেলে রুম্পা তার স্বামী সুমনের সঙ্গে বেড়াতে যান।

রাতে তিস্তা পাড়ের বাসিন্দারা নদীতে একটি মরদেহ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। মঙ্গলবার সকালে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে।

সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি আতিয়ার রহমান জানান, মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মরদেহে ক্ষতের চিহ্নি আছে। মুখ দিয়ে রক্ত ঝড়ছে।

এদিকে এ ঘটনার পর থেকে স্বামী সুমনকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে স্বামী সুমন তাকে হত্যার পর মরদেহ ধান ক্ষেতে ফেলে রেখে পালিয়েছে বলেও জানান ওসি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য