মাহবুবুল হক খান, দিনাজপুর থেকেঃ উৎসবমূখর পরিবেশে দিনাজপুরের নবগঠিত বিরল পৌরসভার প্রথম নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন সোমবার (২৭ নভেম্বর) মেয়র পদে ১০জন প্রার্থীসহ মোট ৭৪ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। আগামী ২৮ ডিসেম্বর নির্বাচনে ভোটগ্রহণ করা হবে। এতে অংশ নিবে ৮৯১৫ জন জন ভোটার।

রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার জাকিয়া সুলতানা জানান, বিরল পৌরসভার নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন মেয়র পদে ১০ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪৪ জন ও সংরক্ষিত আসনের মহিলা কাউন্সিলর পদে ২০ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

মেয়র পদে প্রার্থীরা হলেন-বিরল উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সবুজার সিদ্দিক সাগর, বিরল পৌর বিএনপির আহবায়ক মো. লিয়াকত আলী, বিরল উপজেলা জাপার সাধারণ সম্পাদক মো. আফজাল হোসেন দুলাল, আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শফিকুল আজাদ মনি (স্বতন্ত্র), উপজেলা শ্রমিকলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল ইসলাম লাবু (স্বতন্ত্র), আওয়ামী লীগ নেতা ফরহাদুর রহমান সেলিম (স্বতন্ত্র), জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য মোখলেসুর রহমান ভুট্টু (স্বতন্ত্র), মাওঃ মো. আইয়ূব আলী (স্বতন্ত্র), মো. বাবুল হোসেন (স্বতন্ত্র) ও বিএনপি নেতা মো. রেজাউল ইসলাম বাদশা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এছাড়াও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪৪ জন ও সংরক্ষিত আসনের মহিলা কাউন্সিলর পদে ২০ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

আগামী ২৮ ও ২৯ নভেম্বর মনোনয়নপত্র যাছাই-বাছাই, ৬ ডিসেম্বর মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন, ৭ ডিসেম্বর প্রতিক বরাদ্দ ও ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ২৮ ডিসেম্বর। নবগঠিত বিরল পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে ৪,৫৫৬ জন পুরুষ ও ৪৩৫৯ জন নারী ভোটারসহ ৮৯১৫ ভোটার ভোট প্রদান করবেন। বিরল উপজেলার মোট জনসংখ্যা ১৬ হাজার ৮৫১ জন।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালের ১৯ এপ্রিল শংকরপুর, আলীপুর, বিরল, হুসনা, পাইকপাড়া, ব্রম্মপুর, চকভবানী, রবিপুর, পূর্ব মহেশপুরের ৫ দশমিক ৩০ বর্গ কিলোমিমটার এলাকা নিয়ে বিরল পৌরসভা গঠিত। ২০১২ সালের ১২ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে বিরল পৌরসভার উদ্বোধন করেন। এর পর ২০১৩ সালের ২৭ জুন বিরল পৌরসভার পূর্ণাঙ্গ গেজেট প্রকাশ করা হয়। বর্তমানে এই পৌরসভায় ৮ জন স্থায়ী ও অস্থায়ী ৯জন কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য