রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে ৭’শ শিশুর শিক্ষা জীবনে অনিশ্চয়তার সৃষ্টি হয়েছে ! বিদ্যালয়ে ভর্তি হলেও এরা কি ঝরে পড়েছে ? শিক্ষার সুযোগ হতে বঞ্চিত রয়েছে ? নাকি এসব ভুয়া শিক্ষার্থী ? এ ব্যাপারে কোন সদুত্তরও মেলেনি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ থেকে।

ফলে পীরগঞ্জে সরকারের গৃহীত “সবার জন্য শিক্ষা” কে বিতর্কিত করে তুলেছে। একাধিক সুত্রে জানা গেছে, চলতি শিক্ষা বর্ষে পীরগঞ্জে প্রাথমিক ও এবতেদায়ীর সমাপনি পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৭ হাজার ৬ শত ২৫ জন।

গত ১৯ নভেম্বর এ পরীক্ষা শুরু হয়ে ২৬ নভেম্বর শেষ হয় । কিন্তু পরীক্ষার শেষ দিনের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী এবারের সমাপনী পরীক্ষায় পীরগঞ্জে প্রাথমিকের ৫’শ ১২ জন ও এবতেদায়ীর ১’শ ৯৯ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষাদানে বিরত ছিল।

যে কারনে পীরগঞ্জের ৭’শ ১ জন বিদ্যালয়ে ভর্তিকৃত শিশুর শিক্ষা জীবন কোন পথে ? তা নিয়ে সংশয়ের সৃষ্টি হয়েছে। এসব শিক্ষার্থীর পরীক্ষায় অংশ না নেয়ার ব্যাপারে একাধিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কথা বললে তারা কোন সদুত্তর দিতে পারেননি । গত সোমবার বিষয়টি নিয়ে উপজেলা সহ প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি বলেন,সম্ভবত এসব শিশু বাবা-মা’র সাথে বিভিন্ন স্থানে চলে গেছে ।

তাই পরীক্ষায় অংশ নেয়নি। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জোবায়দা রওশন জাহান উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন- আমরা অবশ্যই বিষয়টি খতিয়ে দেখব” ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য