প্রতিদিনই হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে নতুন নতুন রোগী। আক্রান্তদের মধ্যে বেশিরভাগ শিশু ও বৃদ্ধ।

দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে এবার হেমন্তের মধ্যেই শীতের বেশ আভাস পাওয়া যাচ্ছে। দিনে রোদ আর রাতে হালকা কুয়াশার সাথে সাথে বইছে ঠাণ্ডা বাতাস। আবহাওয়ার এই পরিবর্তনে শীতজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু,বৃদ্ধাসহ সব বয়সী মানুষ।

পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রতিদিনই ভর্তি হচ্ছে নতুন নতুন রোগী। অনেকে হঠাৎ করেই সর্দি, জ্বর, কাশি, শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। আবার কেউ হাসপাতালের বহির্বিভাগ থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।

গত এক সপ্তাহে জেলার সদর হাসপতালসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে দৈনিক ২০ থেকে ৩০ জন রোগী শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হচ্ছেন বলে জানাগেছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে শুধুমাত্র শিশু ইউনিটেই ভর্তি রয়েছে ৪০ জন শিশু। এছাড়া বৃদ্ধ ও অন্যান্য রোগীরাও রয়েছে। বেডের অভাবে অনেকে মেঝেতে বিছানা করেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।

পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (শিশু বিশেষজ্ঞ) ডা. মনোয়ার হোসেন জানান, আবহাওয়ার পরিবর্তনের কারণে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা বেড়ে গেছে। এই সময়ে বেশিরভাগ শিশুরা সর্দি, জ্বর,কাশি, শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন।

তিনি বলেন, যেহেতু আবহাওয়ার পরিবর্তন হচ্ছে এই সময়ে শিশু ও বৃদ্ধদের বিষয়ে সচেতন থাকবে হবে। তারা যেন ঠাণ্ডায় আক্রান্ত না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য