হাকিমপুর (দিনাজপুর) সংবাদদাতাঃ দিনাজপুরের হাকিমপুরের সাধুরিয়া গ্রামে মঙ্গলবার রাতে একটি বাড়িতে ডাকাতি সংঘটিত ও অপর একটি বাড়িতে ডাকাতির চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। এ সময় ডাকাতের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে সাইফুল ইসলাম নামক এক যুবক আহত হয়েছে।

রাতেই তাকে উদ্ধার করে হাকিমপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এবং পুলিশ সন্দেহভাজন একজনকে আটক করেছেন।

থানা পুলিশ ও সাইফুল ইসলামের ভাই সাখাওয়াত হোসেন জানান, ৮/১০ জনের একটি ডাকাত দল হাতেম আলীর বাড়িতে প্রবেশ করে ধারালো অস্ত্রের মুখে গৃহকর্তা হাতেম আলীসহ তার স্ত্রী ও এক ছেলেকে বাড়ির পাশের একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে তার স্ত্রীর কানের দুল ছিনিয়ে নেয়। এবং ছেলেকে জবাই করার হুমকি দিয়ে এক হাজার টাকা লুট করে পালিয়ে যায়।

এরপর ডাকাত দলটি প্রতিবেশী সাইফুল ইসলামে বাড়ির প্রাচীর টপকিয়ে ভিতরে প্রবেশ করে সাইফুল ইসলামরে শয়ন কক্ষের দরজা ভাঙ্গার চেষ্টা করলে সাইফুল ইসলাম ঘুুম থেকে জেগে উঠে দরজা খুলার পর উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্র্ষ বেধে যায়। এরই এক পর্যায়ে ডাকাত দলের সদস্যরা সাইফুলের মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাত করে পালিয়ে যায়। রাতেই প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

এ ব্যাপারে এসআই ফেরদৌস রহমানের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঘটনাস্থল থেকে ডাকাত দলের ফেলে যাওয়া একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে। ফোনটির সূত্র ধরে ডাকাতি সম্পর্কে তথ্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে। এবং এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে উপজেলার জাংগই গ্রামের সাইলদুল ইসলাম নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। সে হাকিমপুর থানার ডাকাতি ও মাদক মামলার আ্সামী। এদিকে আহত সাইফুল ইসলামের অবস্থা সম্পর্কে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের আরএমও ডা: আহসানুল হাবিব বকুলের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, তার অবস্থা বর্তমানে আশঙ্খামুক্ত তবে ৭২ ঘন্টার পূর্র্বে নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য