মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো সামরিক জোটের মহড়া থেকে নিজ দেশের সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরাদোগান। তুরস্কের নেতাদেরকে শত্রু হিসেবে চিহ্নিত করার প্রতিবাদে নরওয়েতে চলমান এ সামরিক মহড়া থেকে সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন তিনি।

শুক্রবার তুরস্কের টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক ভাষণে এরদোগান বলেন, ন্যাটোর মহড়ায় তার নিজের ও আধুনিক তুরস্কের প্রতিষ্ঠাতা মুস্তাফা কামাল আতাতুর্কের নাম শত্রু তালিকায় রাখার কারণে তিনি মহড়া থেকে ৪০ জন তুর্কি সেনাকে দেশে ফেরত আনার নির্দেশ দিয়েছেন।

এরদোগান বলেন, বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটেছে এবং এটা দেশের জন্য অপমানজনক। ফলে তিনি সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন। এ ঘটনার পর ন্যাটোর মহাসচিব জেন্স স্টোলটেনবার্গ তুরস্কের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন।

তিনি বলেন, “নরওয়ের সামরিক মহড়াস্থল স্ট্যাভেনগার কেন্দ্রে এ ঘটনার কথা আমি জেনেছি এবং আমি ব্যক্তিগতভাবে ক্ষমা চাইছি।” তিনি দাবি করেন, এ ঘটনা কেউ ব্যক্তিগভাবে ঘটিয়েছে এবং তা ন্যাটোর নীতির প্রতিফলন নয়। বিষয়টি নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলেও স্টোলটেনবার্গ জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য