আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাটে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগের খোঁজখবর নিতে গিয়ে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে পড়েন জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবু আশরাফ নূর। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সদর উপজেলার সাঁকোয়া তাজ মাহমুদ উচ্চ বিদ্যালয়ে বিষয়টি জানতে গেলে বিদ্যালয় চত্বরে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে শিক্ষার্থী ও স্থানীয় লোকজন অবরুদ্ধ করেন।

পরে স্থানীয়দের তোপের মুখে অতিরিক্ত ফরম পূরনের টাকা কমাতে বাধ্য হয়। জানা যায়, লালমনিরহাটের অধিকাংশ বিদ্যালয়ে এসএসসি ফরম পুরুণে অতিরিক্ত টাকা নেয়া হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবু আশরাফ নূরকে নিদের্শ দেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রেজাউল করিম।

বৃহস্পতিবার ওই শিক্ষা কর্মকর্তা সদর উপজেলার সাঁকোয়া তাজ মাহমুদ উচ্চ বিদ্যালয়ে গেলে অতিরিক্ত টাকা নেয়াকে কেন্দ্র করে তাকে অবরুদ্ধ করে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। পরে স্থানীয় অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের সামনে তিনি মানবিক বিভাগে ফরম পূরণকারী শিক্ষার্থীদের নিকট ১৭শ টাকা ও বিজ্ঞান বিভাগের ফরম পূরণকারী শিক্ষার্থীদের নিকট ১৮০৫ টাকা জমা দেওয়ার ঘোষণা দিলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। এদিকে জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার কাকিনা মহিমা রঞ্জন স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ে ফরম পুরণে অতিরিক্ত টাকা নেয়া হচ্ছে।

লালমনিরহাট জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবু আশরাফ নূর অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, লালমনিরহাট অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রেজাউল আলম সরকারের নির্দেশে এই বিদ্যালয়ে এসএসসির পরীক্ষার ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার বিষয়ে সরে জমিনে জানতে এসেছি। সত্যতা পাওয়ার পর অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের নিকট অতিরিক্ত টাকা না নিতে বলেছি। এবং শিক্ষকদের সর্তক করেছি। অন্যবিদ্যালয় গুলোর ব্যাপারে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে দাবী করেন।

লালমনিরহাট অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রেজাউল আলম সরকার বলেন, অতিরিক্ত টাকা আদায়কারী বিদ্যালয়ে ঝটিকা অভিযান চালানো হবে। অতিরিক্ত টাকা আদায়কারী বিদ্যালয়ের জড়িত শিক্ষকদের কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য