কাহারোল (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ কাহারোলে শ্রমিক সংকটে ভুগছে গ্রামীন জনপদের কৃষকরা।

দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলায় চলতি আমন মৌসুমে বর্তমনে আমন ধান কাটা-মাড়াইয়ে কাজ পুরো দমে শুরু হয়েছে সপ্তাহ খানেক আগে থেকে। কিন্তুু কৃষকরা তাদের ফসল আমন ধান কাটতে ও মাড়াই করতে পারছেনা শ্রমিকের অভাবে সঠিক সময়ে। এর ফলে কৃষকরা শ্রমিদের পিছনে কাজ করার জন্য ছুটতে দেখা গেছে।

বর্তমানে চলতি মৌসুমের আমন ধান কাটা-মাড়াই এর কাজ শুরু করেছে গ্রামীন জনপদের কৃষকরা।

শ্রমিক পেয়ে থাকলেও শ্রমিকের মুজুরী দৈনিক হারে অন্য সময়ের চেয়ে এখন তিন গুন বেশী হওয়ায় কৃষকরা তাদের অতিকষ্টের ফসল আমন ধান ঘরে তুলতে পারছে না।

এদিকে সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে দেখতে গিয়ে উপজেলার তারগাঁও ইউনিয়নের পাহাড়পুর গ্রামের কৃষক মোঃ হাসিম উদ্দীন, আব্দুর রশীদ, মমিরুল ইসলাম ও রসুলপুর ইউনিয়নের বনড়া গ্রামের কৃষক মোঃ বাবুল হোসেন, শ্যামল চন্দ্র রায় সহ অনেকে জানান, এখন আমন ধান কাটা ও মাড়াইয়ের মৌসুমে আমরা কৃষক ধান কাটার জন্য শ্রমিক পাওয়া যাচ্ছে না।

পাওয়া গেলেও অন্য সময়ের চেয়ে শ্রমিকের মুজুরির মূল্য আনেক অনেক বেশী হওয়ায় কৃষকরা বেশী মূল্যে দিন মুজুরদেরকে দৈনিক হারে মুজুরি দিতে হয়।

বৃহস্পতিবার সকাল ৭টা থেকে ৮টা পর্যন্ত কাহারোল সদরের প্রাণ কেন্দ্র দশমাইল আমতলা মোড়ে একজন পুরুষ শ্রমিক ৩৮০ টাকা থেকে ৩২০ টাকা এবং নারী শ্রমিক ২৫০ টাকা থেকে ২৯০ টাকা পর্যন্ত দিনমুজুর হিসাবে শ্রমিকেরা কাজ করছেন। এর ফলে কাহারোল উপজেলায় বর্তমানে দিনমুজুরের সংকট দেখা দিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য