মোঃ আবেদ আলী, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) থেকেঃ বীরগঞ্জে সোমবার আইন শৃংঙ্খলা বিষয়ক সভায় নছিমন-করিমন ও অটো বাইক বন্ধের সুপারিশ করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সভাকক্ষে নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আলম হোসেনের সভাপতিত্বে আইন শৃংঙ্খলা বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপজেলা আইন শৃংঙ্খলা বিষয়ক কমিটির সাধারন সম্পাদক ওসি আবু আক্ কাছ আহ্ মদ ও নির্বাহী সদস্য ইউপি চেয়ারম্যান বৃন্দ, দুর্নীতি কমিটি, সরকারী কর্মকর্তা বৃন্দ, সাংবাদিক ও অন্যরা বক্তব্য রাখেন।

সভায় বক্তাগন অভিযোগ করেন পৌরশহর থেকে ১১টি ইউনিয়নের অজোপাড়া-গায়ে মাদক ছরিয়ে পৌছে গেছে। কোন ভাবেই মাদক-জুয়ার বিষাক্ত ছোবল ও বাল্য বিবাহ থেকে যুব সমাজকে ফিড়িয়ে আনা বা প্রতিরোধ করা সম্ভব হচ্ছে না। এসব প্রতিরোধে প্রশাসন ও আইন শৃংঙ্খলা বাহিনীর জরুরী হস্তক্ষেপের জোর দাবী জানান হয়।

ওসি আবু আক্ কাছ আহ্ মদ সভায় অভিযোগ করে জানান, মোটর সাইকেল আরোহী পুলিশের সাথে নছিমনের আঘাতে এক পুলিশ কনেষ্টবলের একটি পা কেটে ফেলা হয়েছে। তবুও এই উপজেলায় আইন শৃংঙ্খলা অবস্থার উন্নয়ন হয়েছে। গত শুক্রবার ও শনিবার ২’টি হত্যা মামলা রের্কড করা হয়েছে। গত ৬ মাসে শতাধিক মাদকের মামলা এবং ইউসও মহোদয়ের সহযোগিতায় ৫২ জনকে উর্ধে ৬ মাস-সহ বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা আইন শৃংঙ্খলা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আলম হোসেন জানান, বাল্য বিবাহ করার অপরাধে বর ও কনের বাবাকে ৩ মাসের কারাদন্ড দেওয়ার পরেও জেল খেটে বেড়িয়ে লুকিয়ে বাল্য বিবাহ প্রতিষ্ঠা করেছে। তবুও প্রশাসন বসে নেই বাল্য বিবাহ অনুষ্ঠানে হানা দিয়ে প্রতিহত করা হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য