জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার রংপুরে হিন্দু বাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও ভাংচুরের ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানিয়েছেন। তিনি সোমবার ঠাকুরপাড়ায় ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

এদিকে, ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেছেন ভারতীয় সহকারি হাইকমিশনার রাজশাহীর অভিজিৎ চট্টোপাধ্যায়। তবে তিনি সাংবাদিকদের সাথে কোন কথা বলেননি।

রুহুল আমিন হাওলাদার আরো বলেন, আমি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নির্দেশে ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও ক্ষতিগ্রস্থদের দেখতে এসেছি। তিনি বলেন, এমন নিন্দনীয় কাজ যারা করেছে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করে দোষিদের কঠোর শাস্তি দিতে হবে। যাতে ভবিষ্যতে কেউ এ ধরনের কাজ করতে সাহস পায় না।

তিনি বলেন, এ ঘটনায় যেন কোন নিরপরাধ মানুষ হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে প্রশাসনকে দৃষ্টি দিতে হবে। তিনি ক্ষতিগ্রসথদের বলেন, আপনাদের ভয়ের কোন কারণ নেই। পাশে জাতীয় পার্টি রয়েছে। আমাদের পক্ষ থেকে যা যা করা প্রয়োজন আমরা তাই করব।

জাপার মহাসচিব রুহুল আমিন হালাদার সোমবার বিমানযোগে ঢাকা থেকে সৈয়দপুরে আসেন। এরপর সড়কপথে রংপুরের পাগলাপীর সলেয়াশাহ ঠাকুরপাড়ায় ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেন। এরপর রংপুর সার্কিট হাউসে চলে আসেন। এসময় তার সাথে ছিলেন, জাপার কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়, রংপুর মহানগর জাপার সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াছির,গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা সভাপতি কাজী মশিয়ার রহমান, জাতীয় যুব সংহতির রংপুর জেলা সভাপতি আবদুর রাজ্জাক প্রমুখ। রুহুল আমিন হাওলাদার জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে ১০ হাজার টাকা করে প্রদান করেন।

অপরদিকে, ঠাকুরপাড়া এলাকায় ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ২টি মামলায় রোববার রাতে ২৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এনিয়ে তিনদিনে মোট ১২৬ গ্রেফতার হলো। এদের মধ্যে বেশিরভাগই জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মী বলে জানান কোতয়ালি থানার ওসি(তদন্ত) আজিজুল ইসলাম।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য