ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ সরকারী কবরস্থানের খড়ির গাছ(আগাছা) কাটার জের ধরে আবেদ আলী (৩৫) ও আবেদ আলীর স্ত্রী উলফা বেগম নামে এক গরিব দম্পতিকে বেধম পারপিট করেছে ,ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু তাহের মন্ডল। চেয়ারম্যানের প্রহারের শিকার ওই দম্পতি এখন হাসপাতালের বেডে কাতরাচ্ছে আর চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিচার প্রার্থনা করছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে আজ রোববার সকালে দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার খয়েরবাড়ী ইউনিয়নের লালপুর গ্রামে।

অন্যায় ভাবে গরিব দম্পতিকে চেয়ারম্যান বেধম মারপিট করায় ফুঁশে উঠেছে গ্রামবাসীরা । ঘটনাকে কেন্দ্র করে লালপুর গ্রামের বাসীন্দারা দুভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছে এবং উভায় পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এলাকা শান্ত রাখতে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আবুল হোসেন ও নজরুল ইসলাম নামে দুই জনকে আটক করেছে।

এদিকে ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহের বলছেন আবেদ আলীকে কবরস্থানের কাছ কাটতে নিষেদ করতে গেলে, আবেদআলীসহ কয়েকজন তার(চেয়ারম্যানের)উপর চড়াও হয় এবং তাকে গালাগাল দেয। এই কারনে চেয়ারম্যানের সাথে থাকা কয়েকজন আবেদ আলীকে মারপিট করেছে।

লালপুর গ্রামের বাসীন্দা আবুল হোসেন, আনিছুর রহমান, আনোয়ার হোসেনসহ গ্রামবাসীরা বলেন, লালপুর গ্রামের সরকারী কবরস্থানের মধ্যে গজিয়ে উঠা আগাছা আবেদ আলীসহ গ্রামবাসীরা কেটে তা প্রকাশ্যে নিলামের মাধ্যমে বিক্রি করে, ওই অর্থ দিয়ে কবরস্থান ঘেরার সিদ্ধান্ত নেয়।

সে কারনে রোববার আবেদ আলীসহ গ্রামবাসীরা কবরস্থানের আগাছা (খড়ির গাছ) কাটতে শুরু করে, এসময় লালপুর গ্রামের চেয়ারম্যানের সহযোগী বলে পরিচিত লাজু মিয়া বাধা দেয়। কিন্তু লাজু মিয়ার বাধা উপেক্ষা করে গ্রামবাসীরা আগাছা কাটতে থাকলে, খয়েরবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহের মন্ডল দলবল নিয়ে ঘটনাস্থলে এসে দিনমজুর আবেদ আলীকে বেধম মারপিট শুরু করে। এসময় আবেদ আলীর স্ত্রী উলফা বেগম বাধা দিতে গেলে তাকেও মারপিট করে।

লালপুর গ্রামের ছানোয়ার হোসেন, আনোয়ার হোসেন বলেন লালপুর গ্রামের সরকারী কবরস্থানের মধ্যে গজিয়ে উঠা মুল্যবার কাঠের কাছ কর্তন করার জন্য চেষ্ঠা করে আসচ্ছে চেয়ারম্যানের কাছের লোক বলে পরিচিত লাজু মিয়া, কিন্তু গ্রামের বাসীন্দারা তাকে সেই গাচ কর্তন করতে দেয়নি, এই কারনে লাজুসহ চেয়ারম্যান গ্রামবাসীদের উপর ক্ষিপ্ত হয়।

এই বিষয়ে ফুলবাড়ী থানার ভাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ নাসিম হাবিব বলেন ঘটনাকে কেন্দ্র করে গ্রামবাসী ও লাজু মিয়া বাদি হয়ে পৃথক দুটি অভিযোগ দায়ের করেছে, তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য