দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে কৃষি পুনর্বাসন কর্মসুচীর আওতায় সদর উপজেলার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামুল্যে সরিষা, গম, ভুট্টা, বোরো ফসল ও সবজি ফসলের বীজ ও সার বিতরণ করা হয়েছে।

শুক্রবার (নভেম্বর) সকালে সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রধান অতিথি হিসেবে কৃষকদের মাঝে বীজ ও সার বিতরণ করেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি। এ সময় তিনি বলেন, দেশে খাদ্য সংকটের কোন আশংকা নেই। তিনি বলেন, সাম্প্রতিক ভয়াবহ বন্যা মোকাবিলা করা হয়েছে। একটি মানুষও না খেয়ে মরেনি। বন্যা পরবর্তি অল্প সময়ের মধ্যে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের বীজ, সার, কৃষি উপকরণ, বাড়িঘর, রাস্তাঘাট, ব্রীজ, কালভার্ট নির্মাণ ও সংষ্কার শেখ হাসিনার যুগান্তরী সফলতা। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার পরও গতবারের চেয়ে এবারে বেশি উৎপাদন হবে।

দিনাজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুর রহমান সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফরিদুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান কিশোর কুমার রায়, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসমিন লুনা, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. সিরাজুল ইসলাম, সদর উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ও শংকরপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. ইমদাদ সরকার, সাধারন সম্পাদক বিশ্বজিৎ ঘোষ কাঞ্চন, শহর আ’লীগের সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক এসএম খালেকুজ্জামান রাজু, সহকারী জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. নাজমুল রশিদ, বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা এমবিএসক’র নির্বাহী প্রধান ও জেলা খাদ্য অধিকার কমিটির সভাপতি সুলতানা রাজিয়া, খাদ্য অধিকার কমিটির সাধারন সম্পাদক যাদব চন্দ্র রায়, ইউপি চেয়ারম্যান বাবুল আকতার, ইসাহাক চৌধুরী, জিয়াউর রহমান জিয়া প্রমুখ।

উল্লেখ্য হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বন্যা পরবর্তি কৃষি পুনর্বাসনে সদর উপজেলার ২ হাজার ৬৭৫ জন কৃষককে গম, ভুট্টা, সরিষা, বোরো ধানসহ গ্রীষ্মকালীন ফসল উৎপাদনে সাড়ে ৭৬ লক্ষ টাকার বীজ বিনা মূল্যে বিতরণ করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য