কাউনিয়া উপজেলার হরিশ্বর গ্রামের রবিউল হাসান বাবুল এর ২য় পুত্র আবু হাসান আদনাল রাতুল (৩০) এর লাশ গত বুধবার তালুকশাহবাজ এলাকায় তিস্তা নদী থেকে পুলিশ উদ্ধার করে।

পারিবারিক থানা সূত্রে জানাগেছে রাতুল গত ৬ নভেম্বর বিকালে তার মা শামিমা বেগম এর কাছ থেকে ১শ টাকা নিয়ে তিস্তা ব্রীজ ঘুরতে যাবে বলে বাড়ি থেকে বের হয়।

এর পর সন্ধা পেরিয়ে রাত হলে সে বাড়ি না ফিরলে রাতুলের সাথে থাকা মোবাইল নং ০১৭৫৯১৮৫৫৪৯ এই নম্বরে রিং করলে রিং বাজে কিন্ত রিসিভ নয় না। এর পর তার বাবার নম্বরে একটা মেসেস আসে সে তিস্তা ব্রীজে ৪নং পিলারে আর কিছু লিখা ছিলনা। পরিবারটি শোকে বিহ্বল থাকায় মেসেজ আসা নম্বরটি পাওয়া যায়নি।

তাকে তিস্তা ব্রীজ সহ বিভিন্ন স্থানে খুজে নাপেয়ে গত ৭ নভেম্বর তার বাবা কাউনিয়া থানায় একটি জিডি করে। জিডি নং ২৭১। গত ৮ নভেম্বর তালুকশাহবাজ এলাকায় তিস্তা নদীতে বড়শি দিয়ে মাছ মারতে আসা লোকজন দেখে নদীতে ভেঙ্গেপড়া সুপাড়ি গাছের সাথে ভেসে আসা একটি লাশ আটকা পড়েছে। পরে তারা লোকজন কে খবর দিলে স্থানীয় লোকজন এসে লাশটিকে কিনারায় নিয়ে আসে এবং থানায় খবর দেয়।

রাতুলের বাবা নদী পাড়ে গিয়ে তার ছেলের লাশ সনাক্ত করে। পরে থানার এএসআই মাজহারুল ঘটনা স্থলে পৌছে লাশটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মর্গে প্রেরন করে। ওসি মামুন অর রশিদ জানান এটি হত্যা না অন্য কিছু ময়না দন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর জানা যাবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য