অনেক ভেবেচিন্তেই জাপানি সংবাদ মাধ্যম তার নাম দিয়েছিল ‘ব্ল্যাক উইডো’। দেবে না-ই বা কেন, স্বভাবে-চরিত্রে এতটাই যার মিল…!
‘ব্ল্যাক উইডো’ নাম্নী কালো মেয়ে মাকড়সা বৈশিষ্ট্যে ভারি অদ্ভুত।

একবার নিজের শারীরিক চাহিদা মিটে গেলে, সঙ্গীকে মেরে ফেলতে কুণ্ঠা করে না এতটুকু। বছর সত্তরের চিসাকো কাকেহিও তাই। অন্তত তিন প্রেমিককে প্রেমের ফাঁদে ফেলে, তাদের সঙ্গে ডেটিং করে, এরপর ভালোবাসায় আচ্ছন্ন করে এক পর্যায়ে খুন করেন। কপাল জোরে খালি বেঁচে গিয়েছেন চতুর্থ প্রেমিক।

প্রেমিকার আড়ালে চিসাকো কাকেহির এই খুনে মানসিকতা প্রকাশ্যে আসার পরেপরেই জাপানের মিডিয়া তার নাম দিয়ে দেয় ‘ব্ল্যাক উইডো। ‘ বিচারে দোষী সাব্যস্ত কাকেহিকে জাপানের এক আদালত মঙ্গলবার মৃত্যুদণ্ড সাজা দিয়েছে।

জানা গেছে, ডেটিং সাইটের সাহায্যে বেছে বেছে ধনী ব্যক্তিদের প্রেমের জালে জড়াতের চিসাকো কাকেহি। তার প্রেমিকরাও তারই মতো, সত্তরের আশপাশে সবাই। এরপর সম্পদ অর্থকড়ি হাতিয়ে নিতেন এক পর্যায়ে প্রেমিককে বিষে না ফেরার দেশের টিকিট ধরিয়ে দিতেন।

এমনকী নিজের স্বামীও রয়েছে এই তালিকায়। বিয়ের মাসখানেকের মাথায় ৭৫ বছর বয়সি স্বামীকে সে একই কায়দায় খুন করে।
চতুর্থবারে এসে অবশ্য স্বরূপ ফাঁস হয়ে যায় ছদ্মবেশী ওই ‘খুনি’র। বিচারে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায়, কিয়োটো জেলা আদালতের বিচারক মঙ্গলবার তাকে মৃত্যুদণ্ড সাজা দেয়। -এই সময়

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য