সৌদি সরকারের চলমান দুর্নীতি বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে, বিভিন্ন ব্যক্তিগত ও কোম্পানির ১২ হাজারেরও বেশি অ্যাকাউন্ট জব্দ করেছে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকগুলো। বুধবার (০৮ নভেম্বর) মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম মিডল ইস্ট মনিটরের এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির ব্যাংকার ও আইনজীবীদের ধারণা এই সংখ্যাটা আরও বাড়তে পারে।৪ নভেম্বর সৌদি যুবরাজ সালমান বিন আব্দুল্লাহর নেতৃত্বে গঠিত দুর্নীতি দমন কমিশনের অভিযানে দেশটির ১১ জন রাজপুত্র, চারজন বর্তমান মন্ত্রী এবং প্রায় ডজন খানেক সাবেক মন্ত্রী গ্রেফতার হওয়ার ঘটনায় দেশটিতে আলোড়ন তৈরি হয়।

গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে আরবের শীর্ষ ধনী আল-ওয়ালিদ বিন তালালও ছিলেন। তাকে গ্রেফতারের পরই দেশটির শেয়ার বাজারে ধস নামে। এছাড়া হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় মারা যান প্রিন্স মানসুর। রহস্যজনক মৃত্যু হয় আরেক রাজপুত্র আবদুলআজিজ বিন ফাহাদের।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া সাক্ষাতকারে সৌদি কর্মকর্তা বলেন, মানি লন্ডারিং, ঘুষ, চাঁদাবাজি এবং ব্যক্তিগত লাভে সরকারি সুবিধা গ্রহণের মতো অভিযোগ এনে তাদের ব্যাংক একাউন্টগুলো জব্দ করা হয়। নতুন এই কমিটির যে কাউকে গ্রেফতার করার ক্ষমতা রাখে। এছাড়া ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞাও জারি করতে পারে যুবরাজের নেতৃত্বাধীন এই কমিটি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য