আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট থেকে: লালমনিরহাট জেলার আদিতমারীতে এক স্কুলছাত্রী (১৫) কে অপহরণ ও ধর্ষণ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে আদিতমারী থানায় মামলাটি দায়ের করেন অপহৃত স্কুলছাত্রীর বাবা।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২ নভেম্বর) দিনগত রাতে উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের রথেরপাড় এলাকা থেকে উদ্ধার করে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার অপহরণ করা হয় ওই স্কুলছাত্রীকে। অপহৃত ওই ছাত্রী উপজেলার নামুড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির পড়ুয়া ছাত্রী।

মামলার এজাহারে জানা গেছে, স্কুলে যাওয়া আসার পথে তাকে প্রায় উত্ত্যক্ত করত পলাশী ইউনিয়নের ম্যালম্যালি বাজার এলাকার প্রভাবশালী মেহের আলীর ছেলে মাঈদুল ইসলাম (২২)। বিষয়টি মাঈদুলের পরিবারকে অবগত করেও কোনো লাভ হয়নি।

বুধবার (১ নভেম্বর) দিনগত রাতে ওই ছাত্রী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গেলে লম্পট মাঈদুল মেয়েটিকে অপহরণ করে নিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে। পরদিন সন্ধ্যায় মেয়েটি রথেরপাড় এলাকার মহুবর রহমানের বাড়ির পাশে রেখে পালিয়ে যায় মাঈদুল।

অবশেষে মেয়েটি একজনের সহযোগীতায় বাড়িতে ফোন করে অবস্থান জানালে বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে আদিতমারী থানায় মাঈদুলের বিরুদ্ধে অপহরণ ও ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। আদিতমারী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হলেশ্বর রায় জানান, এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ধর্ষকসহ সব আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য