ঠাকুরগাঁয়ের হরিপুর উপজেলায় এবার কার্তিকের শুরুতে আগাম শীতের হিমেল হাওয়া বইতে শুরু করেছে। দিনের বেলায় এর প্রভাব বুঝা না গেলেও সন্ধা নামতেই মনে হয় শীতের কবলে পড়েছে মানুষ। আর এর সুযোগ-কে কাজে লাগিয়েছে শীতের সন্ধাকালীন ভাপা-ফুলি পিঠা ও হাঁস-মুরগির ডিম বিক্রিসহ শীতের বিভিন্ন পিঠা খাওয়ার দোকানিরা।

দুপুর গড়িয়ে বিকাল হলেই দোকানিরা তাদের দোকান নিয়ে হাটে বাজারে পাঁকা রাস্তার ধারে, কাচা-পাঁকা রাস্তার মোড়ে অস্থায়ীভাবে বসে। সন্ধা থেকে রাত্রী ১০টা পর্যন্ত দোকালগুলো খোলা রাখে এতে বেশ জমে উঠে তাদের দোকান। মানুষও খাওয়ার জন্য ভীড় জমায় তাদের দোকানে। বসার জায়গা না থাকলেও দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে আনন্দে আর উল্লাসের মধ্যে সময় কাটিয়ে খেয়ে দেয়ে বাড়ী ফিরে।

আবার কেউ কেউ নতুন বধু ও ছেলে মেয়ে এবং বৃদ্ধা বাবা-মায়ের জন্য কিনে নিয়ে যায়। উপজেলা ধীরগঞ্জ বাজারের দোকানি মাহাবুব জানায় প্রতিদিন সন্ধা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত সে দোকানে এ সকল খাওয়ার জিনিস বিক্রয় করে ২-৩ হাজার টাকা। এতে তার আয় ভাল হয় এবং সংসারও ভাল চলে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য