ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের বিমান হামলার কড়া জবাব দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে ইসলামিক জিহাদ। গোষ্ঠীর নেতা দাউদ শিহাব বলেন, ‘আমরা এর জবাব দিবো, এটা আমাদের কর্তব্য।’ মঙ্গলবার কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে একথা জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার গাজার দক্ষিণাঞ্চলের একটি টানেলে ইসরায়েলের বিমান হামলায় অন্তত সাতজন নিহত হন। আহত হন আরও ৯ জন

ফিলিস্তিনি সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, খান ইউনিসের ওই সুরঙ্গে ইসরায়েলই হামলা চালিয়েছে। দেশটির বার্তা সংস্থা ওয়াফা দাবি করে, সুরঙ্গে পাঁচটি মিসাইল নিক্ষেপ করে ইসরায়েল।

ইসরায়েলি কর্মকর্তারা জানান, সুরঙ্গটি নির্মাণাধীন ছিলো। অনেকদিন পর্যবেক্ষণের পর তারা এই হামলা চালায়। দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, এই হামলার মাধ্যম সুরঙ্গের হুমকি মোকাবিলায় উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করছে তারা।

ইসরায়েলের সার্বভৌমত্বের উপর যেকোনও আঘাতের জন্য হামাস দায়ী থাকবে বলেও জানান তিনি।

ফিলিস্তিনের মু্ক্তিকামী আন্দোলনের সশস্ত্র সংগঠন হামাস এ হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছে, ফাতাহ আন্দোলনের সঙ্গে তাদের যে ঐক্য প্রক্রিয়া চলছে তা ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্যই এ হামলা চালানো হয়েছে। হামাস আরো বলেছে, এই হামলা প্রমাণ করছে তেল আবিব গাজার বিরুদ্ধে আবার যুদ্ধ করতে চায়।

গাজার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ইসলামিক জিহাদের শাখা আল কুদ ব্রিগেডের সদস্য নিহত হয়েছেন। এদিকে প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের দল ফাতাহর পক্ষ থেকে এই বিষয়ে সংলাপের আহ্বান জানানো হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য