ছবি ক্রেডিটঃ নুর ইসলাম দিনাজপুর।

দিনাজপুর নিউজ ডেক্সঃ গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টির কারণে আগাম শীতের প্রকৌপ বৃদ্ধি পেয়েছে দিনাজপুর জেলায়। সোমবার ভোর থেকে আকাশ মেঘাচ্ছন হয়ে থাকে দুপুর ২টার সময় ঝড় হাওয়ার সাথে হঠাৎ করে গুঁড়িগুড়ি বৃষ্টি শুরু হয়ে, তবে বৃষ্টি বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। এরপর কিছু সময়ের জন্য আকাশ পরিস্কার হলেও বিকেল তিনটার পর থেকে পুনরায় আকাশের থেমে থেমে অবস্থা এবং বাতাসের কারনে হঠাৎ করেই ঠান্ডা বেড়ে গেছে।

দেশের উত্তরের সর্ব বৃহৎ জেলা দিনাজপুর হিমালয় কন্যা হিসেবে দেশে-বিদেশে পরিচিত। ষড়ঋতুর এই দেশে পৌষ ও মাঘ শীতকাল। কিন্তু শীতঋতু আসার আগে গুঁড়িগুড়ি বৃষ্টি ও উত্তরের ঠান্ডা হিমেল বাতাস যেনো তীব্র শীতের আভাস জানান দিচ্ছে। এদিকে সারাদিনে চিরিরবন্দর ও পার্বতীপুর উপজেলায় কখনও মুষুল ধারে কখনও থেমে থেমে গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টিপাতের খবর পাওয়া গেছে।

সোমবার দুপুৃরে ভারি বর্ষনে ঠান্ডার প্রকোপ বাড়ায় জনসাধারণকে গরম জামা কাপড় পড়ে হাট-বাজারে আসতে দেখা গেছে। এদিকে অনেকে অফিস আদালতে আসার আগে গরম কাপড় সংগে না আনায় অনেকে শীতে কাহিল হয়ে পড়েছে। ফলে অফিস শেষ করে তড়িঘড়ি বাড়িতে ফিরতে দেখা গেছে।

যদিও দু’একবার আকাশে সূর্য উঁকিঝুকি দিয়েছে। কিন্তু আকাশ মেঘাচ্ছন্না থাকার সূর্য্যরে প্রখর রৌদও পরিলক্ষিত হয়নি। হঠাৎ বৃষ্টির কারনে আমন চাষীরা চিন্তিত হয়ে পড়ে। সাম্প্রতি বন্যায় ক্ষয়ক্ষতির পরে আবার প্রাকৃতিক দূর্য়োগে পূণরাবৃত্তিতে জেলার কৃষকেরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে। বৃষ্টি দীর্ঘস্থায়ী হলে মাঠের ধান নষ্ট হবার সম্ভাবনা আছে বলে অনেকে আশঙ্কা ব্যক্ত করেন। আজ দিনাজপুরের সর্ব নিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৮ ডিগ্রি সেঃ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য