দিনাজপুর সংবাদাতাঃ বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সূবর্ণজয়ন্তীতে পদার্পণে “চলছি তো অবিরাম মানুষের মিছিলে, লড়ছি তো মুক্তির শপথে” এই প্রত্যয় ব্যক্ত করেন উদীচী জেলা সংসদের নেতৃবৃন্দ।

৪৯ বছর পূর্তি ও ৫০ বছরে পদার্পণ উপলক্ষ্যে উদীচী দিনাজপুর জেলা সংসদ বছর ব্যাপী অনুষ্ঠান মালার ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহন করেছে। প্রথম দিনে উদীচী জেলা সংসদ মানববন্ধন, বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, প্রদীপ প্রজ্জ্বলন, আলোচনা, সংবর্ধনা, গণসংগীত ও নৃত্যের আয়োজন করে।

২৯ অক্টোবর রোববার বাংলাদেশ উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর ৪৯ বছর পূর্তি ও ৫০ বছরে পদার্পণ উপলক্ষ্যে উদীচী জেলা সংসদ দিনাজপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। সেখানে সন্ধ্যা ৬টায় বিভিন্ন পেশা, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেত্রীবৃন্দ একযোগে ৫০টি প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করেন এবং উদীচীর পঞ্চাশ জন শিল্পী সমস্ত শহীদ মিনার জুড়ে লাল সাদা পোষাক পড়ে দাড়িয়ে সমবেত কন্ঠে জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে বছর ব্যাপী কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন। এসময় শত শত দর্শক-শ্রোতা জাতীয় সঙ্গীতের সঙ্গে গলা মিলিয়ে জাতীয় সঙ্গীত গায়। ৫০টি প্রদীপের আলোয় শহীদ মিনার আলোকিত হয়ে এক অর্পব দৃশ্যের সৃষ্টি হয়।

পরে জেলা উদীচীর সভাপতি রেজাউর রহমান রেজু’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে আলোচনায় অংশ নেন জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন জেলা সংসদের সাধারণ সম্পাদক সত্য ঘোষ, সূচনা বক্তব্য রাখেন জেলা উদীচীর বছরব্যাপী সূর্বনজয়ন্তী উৎযাপন পরিষদের আ্হবায়ক ড.মারুফা বেগম। আলোচনা শেষে জেলা উদীচীর সাবেক সভাপতি, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরীকে সংবর্ধনা ক্রেস্ট প্রদান করেন প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

অতিথিবৃন্দ বলেন, ৫০ বছরে পদার্পণ করলো উদীচী। উদীচী জন্মলগ্ন থেকে মানুষে মানুষে বৈষম্য ও শোষণের বিরুদ্ধে সোচ্চার থেকেছে শিল্পকলার সমস্ত কর্মযজ্ঞাকে হাতিয়ার করে। সাংস্কৃতিক গণজাগরণ, গণতান্ত্রিক আন্দোলনে মানুষের সাথে থেকে রেখেছে সাহসী ভুমিকা। কিন্তু বারবার শাসকের পরিবর্তন ঘটলেও ঘটেনি শোষনের অবসান। মানুষের মুক্তি লড়াইয়ে উদীচী তাই আগামী দিনেও মানুষের ভালবাসাকে সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে চলার প্রত্যয়ী।

এর আগে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সম্মুখে বিকেল সাড়ে তিনটায় রোহিঙ্গা হত্যা-নির্যাতন-ধর্ষন, দেশ থেকে বিতরনের প্রতিবাদে মানব বন্ধন কর্মসূচী পালন করে উদীচী জেলা সংসদের নেতৃবৃন্দ। পরে উদীচী’র সূবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে অত্যান্ত সুশৃঙ্খল বর্ণ্যাঢ্য শোভাযাত্রা শহর প্রদিক্ষণ করে দিনাজপুর গোর-এ-শহীদ বড় ময়াদনে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য