‘‘গ্রীণ তেঁতুলিয়া-ক্লিন তেঁতুলিয়া’’ উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কাজী আনিছুর রহমানের নেতৃত্বে স্বপ্নের শহর তেঁতুলিয়ায় শুরু হয়েছে মাসব্যাপী পরিস্কার পরিচ্ছন্ন অভিযান। সকাল ৮.৩০ ঘটিকায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সানিউল ফেরদৌস এই অভিযানের শুভউদ্বোধন ঘোষণা করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন-দেশের দু’টি স্থানের নাম সর্বসাধাণের মুখে মুখে শোনা যায় একটি তেঁতুলিয়া অপরটি টেকনাফ। এখানে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে দেশী এবং বিদেশী পর্যটকরা প্রায় সময় বেড়াতে আসেন। তিনদিকে ভারতের কাঁটা তারের বেড়া দ্বারা বেষ্টিত উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন সাতটি নদীর সীমানা দ্বারা বিভক্ত।

ভৌগোলিক কারণে তেঁতুলিয়া পর্যটকদের কাছে অনেক গুরুত্ব বহন করে। তিনি বলেন- এ উপজেলার জনসাধারণ অত্যন্ত সহজ-সরল ও অতিথিপরায়ণ। এই সুনামের পাশাপাশি আমরা যদি তেঁতুলিয়া শহরকে সকলের সহযোগিতায় পরিস্কার পরিচ্ছন্ন চকচকে রাখতে পারি; তবে একদিন দেশে বিদেশের কাছে ‘‘গ্রীণ তেঁতুলিয়া-ক্লিন তেঁতুলিয়া’’ স্বপ্নের শহর হিসেবে পরিগণিত হবে।

তিনি বলেন, আজকের পর থেকে আমাদের স্বপ্নের শহর তেঁতুলিয়াকে আমরা নিজেরাই পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখব; নিজেদের ময়লা-আবর্জনা নিজেরাই এই প্রত্যয় নিয়ে মাসব্যাপী পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান অব্যাহত থাকবে।

তেঁতুলিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক কাজী মতিউর রহমানের সঞ্চালনায় উপজেলা পরিষদ মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান সুলতানা রাজিয়া, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা পারভীন আকতার বানু, উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) শামীন শারার ফুয়াদ, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী মোকাররম হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা ইয়াছিন আলী মন্ডল, উপজেলা জাসদ সভাপতি জাহিদুল ইসলাম, তেঁতুলিয়া চৌরাস্তা বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মো. আজহারুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন সহ বিভিন্ন সংঘ ও পেশাজীবী সংগঠনের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

গতকাল রবিবার অভিযানের প্রথম দিনে তেঁতুলিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে তেঁতুলিয়া চৌরাস্তা বাজারের দু’ধারে গাছে লাগানো বিলবোর্ড ও ব্যানার খুলে ফেলা হয়। উপজেলা প্রশাসনের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে ইত্যাদি এর আহবানে সাড়া দিয়ে চৌরাস্তা বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সদস্য, দোকান মালিক, দোকান ঘরের মালিক, রিক্সা-ভ্যান শ্রমিক, করাতকল শ্রমিক, হোটেল শ্রমিক, কুলি শ্রমিক, জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিকরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে এই পরিস্কার পরিচ্ছন্ন অভিযানে অংশগ্রহণ করেন। এ সময় জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তরের আয়োজনে জাতীয় স্যানিটেশন মাস অক্টোবর/১৭ উদযাপন উপলক্ষ্যে একটি র‌্যালী চৌরাস্তা বাজারে পৌছে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযানে অংশগ্রহণ করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য