আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ সেচ মৌসুমের বর্ধিত বিল সংশোধন, লোডশেডিং মুক্ত নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করা ও পিডিবি’র নির্বাহী প্রকৌশলীসহ দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা-কর্মচারিদের বিচারসহ ৯ দফা দাবিতে রোববার বিদ্যুৎ গ্রাহক ও সেচ পাম্প মালিকদের বিক্ষোভ মিছিল, স্মারকলিপি প্রদান ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে বিদ্যুৎ মন্ত্রী বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রদান করে। বিদ্যুৎ গ্রাহক ও সেচ পাম্প মালিক সমিতি জেলা শাখা এই কর্মসূচীর আয়োজন করে।

মিছিল পূর্ব গাইবান্ধা পৌর শহীদ মিনার চত্বরে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত জেলা সভাপতি আলহাজ্ব মজিবর রহমান। সমাবেশে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় পলিট ব্যুরোর সদস্য আমিনুল ইসলাম গোলাপ, সমাজতান্ত্রিক দল বাসদের জেলা সমন্বয়ক ও বিদ্যুৎ গ্রাহক ও সেচ পাম্প মালিক সমিতির উপদেষ্টা গোলাম রব্বানী, জেলা জাসদের সহ-সভাপতি জিয়াউল হক জনি, জাতীয় কৃষক সমিতি জেলা সহ-সভাপতি অ্যাড. আশরাফ আলী, বিদ্যুৎ গ্রাহক ও সেচ পাম্প মালিক সমিতি জেলা সাধারণ সম্পাদক আনাউর রহমান, উপদেষ্টা মাসুদুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ আহমাদুর রহিম, সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন মিয়া, দপ্তর সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, শাহীন মিয়া, আসাদুজ্জামান শাহীন, মাহবুবার রহমান সুমন প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ি ২০১৪ সালের সেচ মৌসুমের বিলকৃত ইউনিটের সাথে সামঞ্জস্য রেখে ২০১৫ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত সেচ মৌসুমের বিল সংশোধন, কোনভাবেই বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি না করা, লোডশেডিং মুক্ত নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করা, ডমেষ্টিক গ্রাহকদের হয়রানিমূলক অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিল প্রদান বন্ধ, সরকার ঘোষিত ৩০% ভুর্তকির টাকা কৃষকদের ফেরত, আগামী সেচ মৌসুমের পূর্বেই সেচ পাম্প মালিকদের বিনামূল্যে সরকারিভাবে বৈদ্যুতিক মিটার সরবরাহ এবং গাইবান্ধা জেলার পিডিবি’র নির্বাহী প্রকৌশলীসহ ১০ জন দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা-কর্মচারিদের বিচার দাবি করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য