জুরি হিসেবে দায়িত্ব পালনে আমন্ত্রণ পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। সাড়া দিতেও দেরি করেননি তিনি।

সব ঠিক থাকলে আগামী মাসেই ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের কুক কাউন্টিতে জুরির চেয়ারে দেখা যাবে দুই মেয়াদে হোয়াইট হাউজে থাকা সাবেক এই ডেমোক্রেট প্রেসিডেন্টকে।

এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানাতে পারেনি বিবিসি। ওবামার মুখপাত্রও এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি।

যুক্তরাষ্ট্রের বিচারব্যবস্থায় জুরিদের ভূমিকা কম নয়। বিচারক চাইলে তাকে সহযোগিতা করতে নাগরিক সমাজের বিভিন্ন প্রতিনিধিদের মধ্য থেকে জুরি মনোনীত করতে পারেন। বিভিন্ন পক্ষের যুক্তি, তর্ক ও তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে জুরিরা মামলা বিষয়ে তাদের মতামত দেন।

৫৬ বছর বয়সী ওবামার ওয়াশিংটন এবং শিকাগোতে বাড়ি আছে। তার আগে বিল ক্লিনটন ও জর্জ ডব্লিউ বুশও প্রেসিডেন্ট পদ ছাড়ার পর জুরি মনোনীত হয়েছিলেন।

সিনেটর প্রতিনিধি হওয়ার আগে বারাক ওবামা হার্ভার্ড ল স্কুলে পড়েন, তিনি ইউনিভার্সিটি অব শিকাগোর ল স্কুলে ১২ বছর শিক্ষকতাও করেছিলেন। রাজনীতি শুরুর আগে নাগরিক অধিকার বিষয়ক আইনজীবি হিসেবেও তার পরিচিতি ছিল।

“প্রতিনিধির মাধ্যমে তিনি (ওবামা) স্পষ্ট করে যা আমাকে বলেছেন, তা হচ্ছে- নাগরিক ও কমিউনিটির বাসিন্দা হিসেবে তিনি তার ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করে যাবেন,” শিকাগো ট্রিবিউনকে এমনটাই বলেন কুক কাউন্টির প্রধান বিচারক টিমোথি ইভানস।

জুরি হতে সম্মতি জানালেও সাবেক প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তার দিকটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বলেও মন্তব্য করেছেন টিমোথি।

কুক কাউন্টির নিয়ম অনুযায়ী, জুরির এই কাজের জন্য দিনপ্রতি ১৭ দশমিক ২৫ ডলার বেতন পাবেন ওবামা।

এর আগে ২০০৪ সালে উপস্থাপক অপরা উইনফ্রে কুক কাউন্টির একটি খুনের মামলায় জুরির দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য