দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে নানী বেলি খাতুন (৫৫) কে হত্যা মামলায় জড়িত থাকার সন্দেহে নাতী হাফিজুর রহমান ওরফে শান্ত (১৫) কে মঙ্গলবার দিবাগত রাতেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নিখোঁজের ১২দিন পর নিজ বাড়ীর পায়খানার কুপে মঙ্গলবার রাতে বেলি খাতুন নামে ওই বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার করা হয়। আটক নাতী শান্ত জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার বারকান্দি গ্রামের মনোয়ার হোসেনের ছেলে।

ঘটনাটি নবাবগঞ্জ উপজেলার ভাদুরিয়া গ্রামে ঘটেছ। মৃতঃ বেলি খাতুন ওই গ্রামের মৃত সাহাজ উদ্দীনের স্ত্রী।

২৪ অক্টোবর রাতেই নিহত বেলি খাতুনের ভাই নবাবগঞ্জের আখিরা গ্রামের আফিল উদ্দীন বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে। ওই মামলায় নাতী শান্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গতকাল বুধবার লাশ ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর মর্গে প্রেরণসহ গ্রেফতারকৃত শান্তকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে বলে পুলিশ জানায়।

নবাবগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক আবদুল হাকিম আজাদ জানান, গ্রেফতারকৃত শান্ত নবাবগঞ্জের ভাদুরিয়া গ্রামের নানী বেলি খাতুনের সাথে তার বাড়ীতে বাস করত। গত ১২ অক্টোবর রাত সাড়ে ৮টার দিকে তার নানীকে হত্যা করে বাড়ীর বাইরে পায়খানার কুপে রাখে। গত ২৪ অক্টোবর সন্ধ্যায় বিষয়টি জানাজানি হলে পুলিশ সংবাদ পেয়ে রাতেই তার লাশ উদ্ধার করে।

রাতেই নিহত বেলি খাতুনের ভাই আফিল উদ্দীন বাদী হয়ে মামলা করলে ওই মামলায় নাতী শান্তকে গ্রেফতার করা হয়। কি কারণে ওই হত্যার ঘটনাটি ঘটেছে সে বিষয়ে কিছু জানাতে পারেনি পুলিশ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য