ভারতের বিজেপি নেতা ও কেন্দ্রীয় দক্ষতা বিকাশ দফতরের প্রতিমন্ত্রী অনন্ত কুমার হেগড়ের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছেন ব্রিটিশ ভারতের মহীশূর রাজ্যের শাসনকর্তা টিপু সুলতানের বংশধররা।

টিপু সুলতানের ছোট ছেলে প্রিন্স গোলাম মুহম্মদের প্রপৌত্র প্রিন্স আনোয়ার আলী শাহ’র অভিযোগ, ‘কেন্দ্রীয়মন্ত্রী অনন্ত কুমার হেগড়ে টিপু সুলতান সম্পর্কে কটু মন্তব্যের মধ্য দিয়ে ইতিহাসকে বিকৃত করতে চাচ্ছেন। এটা দেশের পক্ষে লজ্জা। তাকে ওই মন্তব্যের জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। আমরা কেন্দ্রীয় ওই মন্ত্রীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করতে আইনজীবীর পরামর্শ নিচ্ছি।’

টিপু সুলতানের স্মৃতিতে ১৮৩৬ সালে পশ্চিমবঙ্গের কোলকাতার ধর্মতলা ও টালিগঞ্জে টিপু সুলতান মসজিদ তৈরি করেছিলেন তার পুত্র প্রিন্স গোলাম মুহম্মদ। ওই দুই মসজিদের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে আছেন প্রিন্স গোলাম মুহম্মদ ওয়াকফ এস্টেটের মাতোয়াল্লি প্রিন্স আনোয়ার আলী শাহ।

তিনি বলেন, ‘বিজেপি কেন্দ্রীয় সরকারে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বিভাজনের রাজনীতি শুরু করেছে। আগে তাজমহলকে ঘিরে সাম্প্রদায়িক রাজনীতি শুরু করেছে। এবার টিপু সুলতান সম্পর্কে কুরুচিকর মন্তব্য করেছে। এভাবে বিজেপি বরাবরই মেরুকরণের মাধ্যমে রাজনৈতিক ফায়দা তোলার চেষ্টা করছে।’

টিপু সুলতানের বংশধর বখতিয়ার আলী বলেন, তারা পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনন্ত কুমার হেগড়ের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন। বখতিয়ার আলী টিপু সুলতানের ষষ্ঠ প্রজন্মের বংশধর।

তিনি বলেন, এমপি’র এ ধরণের মন্তব্যে হতাশ হয়েছেন। একজন এমপি এ ধরণের বিবৃতি কীভাবে দিতে পারেন!

টিপু সুলতানের প্রশংসা করে তিনি বলেন, টিপু সুলতান পরম শ্রদ্ধেয় শাসক ছিলেন। এজন্য বিরূপ মন্তব্যে তার ভাবমূর্তিতে আঘাত করেছে।

ভারতে কংগ্রেসশাসিত কর্ণাটক সরকার আগামী ১০ নভেম্বর টিপু সুলতানের জন্মবার্ষিকী পালন করতে যাচ্ছে। কিন্তু বিজেপি নেতা ও কেন্দ্রীয় দক্ষতা উন্নয়ন দফতরের প্রতিমন্ত্রী অনন্ত কুমার হেগড়ে টিপু সুলতানকে নৃশংস হত্যাকারী, উন্মাদ, গণধর্ষণকারী বলে কটু মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেন, এমন একজনকে মহিমান্বিত করে তোলার লজ্জাজনক অনুষ্ঠানে আমাকে আমন্ত্রণ না জানাতে বলেছি কর্নাটক সরকারকে। এরপর থেকেই বিভিন্নমহলে তার ওই মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করা হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য