মো: ইউসুফ আলী আটোয়ারী থেকে: পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে রাহেনা বেগম(৪৩) নামের এক গৃহবধুর রহস্যজনক ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। উপজেলার উত্তর তোড়িয়া শাহাপাড়া গ্রামের মৃত শরীফ উদ্দীনের পুত্র নাসির উদ্দীন( গ্রাম পুলিশ)(৫৫) এর সাথে তার তৃতীয় স্ত্রী রাহেনা বেগম (৪৩) এর সম্প্রতি পারিবারিক কলহ বিরাজ করছিল।

গত ২১ অক্টোবর শনিবার পুর্বের পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। রাত প্রায় সাড়ে ৮ টার দিকে নিজ গৃহে ওড়না দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে থাকতে দেখে নাসির চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা ছুটে আসে। প্রতিবেশীরা জানায়, বেশ কিছুদিন হতে তাদের মধ্যে প্রায় সময় ঝগড়া লাগতো।

রাহেনা বেগমের পিতা হাফিজ উদ্দীন জানান, রাত সাড়ে ৮ টার সময় নাসির আমাকে মোবাইল ফোনে বলেছে রাহেনা অসুস্থ্য। আমি দ্রুত নাসিরের বাড়িতে এসে দেখি আমার মেয়ে রাহেনাকে হত্যা করে পরিকল্পিত ভাবে ফাঁস লাগিয়ে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। পরে আটোয়ারী থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে পঞ্চগড় মর্গে প্রেরন করেন।

রাহেনা বেগমের পিতা হাফিজ উদ্দীন বাদী হয়ে মৃত শরীফ উদ্দীনের পুত্র নাসির উদ্দীন সহ ৮ জনকে আসামী করে আটোয়ারী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-০৩, তারিখ: ২২/১০/২০১৭ ইং।

মামলার অন্যান্য আসামীরা হলো নাসির উদ্দীনের পুত্র সমির উদ্দীন(৩০), সমির উদ্দীনের স্ত্রী আলেয়া বেগম (২২), নাসির উদ্দীনের স্ত্রী নসিফা বেগম (৪৫), আলাউদ্দীনের পুত্র হাফিজ উদ্দীন(৪০), হাফিজ উদ্দীনের স্ত্রী লিলি বেগম (৩০), শরীফ উদ্দীনের পুত্র পইমুল ইসলাম (৪১) ও দারাজ উদ্দীনের পুত্র জয়নুল হক (৩০) আসামীরা সবাই উপজেলারা উত্তর তোড়িয়া শাহাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

আটোয়ারী থানার ওসি আমিনুল ইসলাম ও বারঘাটি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক রমজান আলী মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, লাশ ময়না তদন্তের জন্য পঞ্চগড় মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য