আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট থেকে: ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে শ্যামল চন্দ্র রায় শিমুলকে লালমনিরহাটের সদর উপজেলার মোঘলহাট ইউনিয়নের মেগারাম এলাকায় শ্যামলের নিকটতম এক আত্মীয় বাড়ি থেকে লালমনিরহাট সদর থানার পুলিশ গ্রেফতার করেছে। শক্রবার (২০ অক্টোবর) দুপুর ১টার দিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এর আগে দুই ফেসবুক আইডি ব্যবহারকারীর বিরুদ্ধে কালীগঞ্জ থানায় তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। উপজেলার কাকিনা ইউনিয়নের হরবানীনগর এলাকার আবুল কালাম আজাদের ছেলে কামরুজ্জামান রাজু (২৮) বাদী হয়ে এই মামলাটি দায়ের করেন। আসামীরা হলেন, কাকিনা ইউনিয়নের হরবানীনগর চওড়াটারী এলাকার চিত্ত রঞ্জন রায়ের ছেলে শ্যামল চন্দ্র রায় শিমুল (২১) ও অজ্ঞাত ঠিকানাধারী মহম্মদ সাফেক উদ্দিন।

জানা গেছে, বুধবার দিবাগত রাতে কালীগঞ্জের শান্তিগঞ্জ বাজারে কামরুজ্জামান রাজু। স্থানীয় শ্যামল কুমার রায় শিমুলের ফেসবুক আইডিতে কাবা শরীফের একটি ছবি ও কিছু লেখা পোষ্ট দেখতে পান। এতে মুসলমানদের ধর্মীয় চরম আঘাত করে আজেবাজে বিষয় দেখতে পান। ছবির বিবরণ ও পোষ্টের বিষয় পত্রিকায় ছাপার অযোগ্য।

এই বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে চরম ক্ষোভ প্রকাশ বাড়তে থাকে। এক পর্যায়ে কালীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে দলে দলে মিছিলসহকারে মানুষজন শান্তিগঞ্জ বাজারে আসতে থাকে।কিছুক্ষনের মধ্যেই কয়েক হাজার মানুষের সমাগমে উত্তাল হয়ে ওঠে। খবর পেয়ে লালমনিরহাট পুলিশ সুপার ও কালীগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেন।

পরে মামলা ও আসামী গ্রেফতারের আশ্বাসে পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতি ঘটলেও এখনও থমথমে বিরাজ করছে। তবে ঘটনাস্থলে সাদা ও পোষাকধারী অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক, শ্যামল চন্দ্র রায়কে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য