চীনের কমিউনিস্ট পার্টির কংগ্রেসে চীনা জীবনধারার সঙ্গে সঙ্গতি রেখে মার্কসবাদ বিষয়ে নতুন চিন্তাভাবনা হাজির করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। এর মাধ্যমে দল ও সরকারে শি নিজের শীর্ষস্থান আরও পোক্ত করলেন বলে ধারণা বিবিসির।

গত বুধবার থেকে বেইজিংয়ে ৭ দিনের কংগ্রেস শুরু করেছে চীনে কয়েক দশক ধরে ক্ষমতায় থাকা এই পার্টি।কংগ্রেসেই পরের পাঁচ বছরের নেতৃত্ব ঠিক করবেন কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিসি) নেতাকর্মীরা। গত কংগ্রেসে দলের শীর্ষ পদে আসা শি দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই রাষ্ট্র এবং সিপিসির বিভিন্ন স্তরে নিজের কর্তৃত্ব জোরদার করেছেন।

উদ্বোধনী ভাষণে তিনি বিশ্বমঞ্চে চীনের এখন কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব নেওয়ার সময় বলেও মন্তব্য করেন। কংগ্রেসের শুরুর দিন থেকেই দলটির বেশ ক’জন শীর্ষ কর্মকর্তা তাদের বক্তব্যে ‘শি জিনপিংয়ের চিন্তাভাবনার’ কথা উল্লেখ করেন।

এই বিষয়ে বিস্তারিত বলতে না পারলেও বিবিসি জানায়, মতাদর্শটি কংগ্রেসে গৃহীত হলে সিপিসির গঠনতন্ত্রেও পরিবর্তন আসবে। এটি হলে মাও জে দং ও দেং জিয়াওপিংয়ের পর শি হবেন দলটির তৃতীয় ‘তাত্ত্বিক নেতা’। দল ও রাষ্ট্রের সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী হবেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার সিপিসির অসংখ্য জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা কংগ্রেসে ‘চীনের চরিত্রের সঙ্গে সমন্বয় রেখে সমাজতন্ত্র বিষয়ে শি জিনপিংয়ের নতুন যুগের ভাবনা’র প্রশংসা করে বক্তব্য রাখেন। শি’র এই মতাদর্শে ১৪টি নীতি আছে বলে জানিয়েছেন তারা। যেখানে কমিউনিস্ট আদর্শের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে চীনে গভীর ও পূর্ণাঙ্গ সংস্কার এবং মানুষ ও প্রকৃতির সঙ্গে সমন্বয় রেখে উন্নয়নের কথা বলা হয়েছে।

এতে সেনাবাহিনীর ওপর জনগণের কর্তৃত্বের কথাও বলা হয়েছে। দুই হাজারেরও বেশি প্রতিনিধি নিয়ে ১৯তম এই কংগ্রেস আগামি সপ্তাহে শেষ হওয়ার কথা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য