আফগানিস্তানের পাখতিয়া ও গাজনি প্রদেশে জঙ্গি গোষ্ঠী তালেবানের সিরিজ হামলায় অন্তত ৭১ জন নিহত হয়েছেন। বুধবার কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পাখতিয়া প্রদেশের রাজধানী গারদেজের একটি পুলিশ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে আত্মঘাতী হামলা ও বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন ৪১ জন। আহত হয়েছেন ১৫০ জন। আর পাশ্ববর্তী গাজনি প্রদেশে গাড়ি বোমা হামলায় নিহত হয়েছেন ৩০ জন।

পাখতিয়ার মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ৯টার দিকে এই হামলা চালানো হয়। রাজধানী কাবুল থেকে এলাকাটি ১৬১ কিলোমিটার দূরে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও পুলিশ জানিয়েছে, পাকতিয়া পুলিশ সদর দফতরের পাশে একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের কাছে দুটি আত্মঘাতী বোমা হামলা চালানো হয়। এরপর বন্দুকধারীরা হামলা শুরু করে।

পাখতিয়া স্থানীয় সরকার দফতরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, হামলার শিকার অধিকাংশই বেসামরিক লোকজন। যারা পাসপোর্ট ও জাতীয় পরিচয়ের জন্য পুলিশ সদর দফতরে এসেছিলেন। কর্মকর্তারা জানান, বন্দুক ও আত্মঘাতী ভেস্ট সজ্জিত পাঁচ জঙ্গির সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর প্রায় ৫ ঘণ্টা বন্দুকযুদ্ধ চলে। পাঁচ জঙ্গি নিহতের মধ্যদিয়ে এ বন্দুকযুদ্ধ শেষ হয়।

অপরদিকে, গজনির গভর্নরের মুখপাত্র হারেফ নূরী এএফপিকে বলেন, গারদেজ থেকে প্রায় একশ’ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত গজনিতে একটি পুলিশ সদর দফতরের পাশে একটি বিস্ফোরক বোঝাই যানবাহনের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পুলিশ সদর দফতরে হামলা চালানো হয়।

স্থানীয় পুলিশ প্রধান মোহাম্মদ জামান বলেন, এ হামলায় বেশ কয়েকজন তালেবান জঙ্গি নিহত হয়। এক বিবৃতিতে বলা হয়, এই হামলায় অন্তত ৩০ জন নিহত হয়েছেন যাদের বেশিরভাগই পুলিশ।

তবে তালেবানদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, তাদের হামলায় অন্তত ৪৪ জন পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছেন। এছাড়া অনেক অস্ত্রও লুট করেছেন তারা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য